নিষেধাজ্ঞার দুদিনে বেনাপোল দিয়ে দেশে ফিরল ৪৩৯ বাংলাদেশি

এদের মধ্যে আগত তিন বাংলাদেশির করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সম্প্রতি ভারতের সঙ্গে সকল স্থলবন্দর বন্ধ করে দিয়েছে সরকার। গত ২৬ এপ্রিল থেকে ১৪ দিনের এ নিষেধাজ্ঞা ঘোষণা করা হয়। এরইমধ্যে ২৮ এপ্রিল বিকেল পর্যন্ত সময়ে ভারতে আটকে পড়া ৪৩৯ জন বাংলাদেশি বেনাপোল স্থলপথে দিয়ে দেশে ফিরেছেন। এদের মধ্যে আগত তিন বাংলাদেশির করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। অন্যদিকে, বাংলাদেশ থেকে ভারতে ফিরেছেন ৬৭ যাত্রী।

জানা গেছে, ফেরত আসা বাংলাদেশিরা বেনাপোলের সাতটি আবাসিক হোটেলে ১৪ দিনের জন্য প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে আছেন। এদের মধ্যে গিয়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এমনও তিনজন রয়েছে। এরা ভারতে গিয়ে করোনাভাইরাস পজিটিভ হন।

এদিকে, চিকিৎসা শেষে হাতে খরচের টাকা না থাকায় ভারত ফেরত বাংলাদেশিরা নিজ খরচে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে অসহায় দিন পার করছেন বলে জানা গেছে। তবে সরকারি নির্দেশনা মানতে তাদের বাধ্য হয়ে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হচ্ছে।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন স্বাস্থ্য বিভাগের মেডিকেল অফিসার আশরাফুজ্জামান বলেন, ভারত ফেরত বাংলাদেশিরা বেনাপোল বন্দর এলাকার সাতটি আবাসিক হোটেলে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে আছেন। সেখানে সব খরচ যাত্রীদের বহন করতে হবে। এছাড়া, ফেরত আসা তিন বাংলাদেশি করোনাভাইরাস পজিটিভ যাত্রীকে যশোর সদর হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব বলেন, বাংলাদেশি উপ-হাই কমিশনারের ছাড়পত্র থাকায় আটকে পড়া ৪৩৯ জন ভারত থেকে দেশে ফিরেছেন। নিষেধাজ্ঞার পর থেকে বাংলাদেশি পাসপোর্টধারী কোনো যাত্রী নতুন করে ভারতে যায়নি এবং ভারত থেকেও ভারতীয় নাগরিক বাংলাদেশে আসেনি।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.