বেনাপোল সীমান্তে আটকে গেলেন প্রায় আড়াইশ বাংলাদেশি

ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের স্থলবন্দর দিয়ে ১৪ দিনের জন্য যাতায়াত বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরদিন বেনাপোল-পেট্রাপোলে আটকে গেলেন প্রায় আড়াইশ বাংলাদেশি।

মেডিকেল ভিসা নিয়ে আত্মীয়-পরিজন এর চিকিৎসা করাতে এসেছিলেন অনেক মানুষ। বাংলাদেশ সরকার সীমান্ত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়ে অনেকেই জানতেন না। আর তাই অন্যবারের মতো সীমান্তে পৌঁছেছেন তারা। কিন্তু বাংলাদেশে ফেরা হলো না সেই মানুষগুলোর।

“আমরা মেডিকেল ভিসা নিয়ে রোগের চিকিৎসা করাতে এসেছিলাম…এখানে এসে জানতে পারলাম আমরা দেশে ফিরতে পারব না। আমাদের টাকা শেষ। এসে না ফিরতে পারলে এখানে কিভাবে থাকবো ?” বললেন রায়গঞ্জের বাসিন্দা মোঃ হাবিবুর রহমান।

একই অবস্থা বরিশালের শংকর বিশ্বাসের। কারণ দেশে ফেরা সম্ভব নয়। আবার ভারতের থাকারও টাকা নেই।

প্রায় আড়াইশ মানুষের অবস্থায় বার বার ভারতীয় অভিবাসন দপ্তরের অফিসারদের অনুরোধ করতে থাকেন তাদের যেন বাংলাদেশে যেতে দেওয়া হয়।

“কিন্তু আমাদের তো কিছু করার নেই …কারণ যে নির্দেশের কারণে আমরা ওদের যেতে দিচ্ছি না, তা বাংলাদেশ সরকারের সিদ্ধান্ত” বলেন তরুণ বিশ্বাস, চিফ ইমিগ্রেশন অফিসার, পেট্রাপোল।

বাংলাদেশ ডেপুটি হাইকমিশন থেকে অবশ্য জানানো হয়েছে যাদের ভিসার মেয়াদ ফুরিয়ে আসছে, তারা তাদের সাথে যোগাযোগ করে নো অবজেকশন সার্টিফিকেট এবং করোনা নেগেটিভ টেস্ট রিপোর্ট নিয়ে বাংলাদেশে ফেরত যেতে পারেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.