১০ দিনের ভেতরেই দিতে হবে পণ্য ডেলিভারি

ই-কমার্স কোম্পানিগুলো নির্দেশনা না মানলে সরকার ওই কোম্পানি বন্ধও করে দিতে পারে

দেশের ই-কর্মাস সাইটগুলো কীভাবে পরিচালিত হবে সে বিষয়ে চূড়ান্ত নির্দেশনা দিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। খুব শিগগিরই “ভেটিং” এর জন্যে নির্দেশনাটি আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে।

নির্দেশনাটি বাস্তবায়ন হলে অগ্রিম টাকা নেওয়ার ১০ দিনের মধ্যে ক্রেতাদের কাছে ডিজিটাল কমার্স কোম্পানিগুলোর পণ্য সরবরাহ করতে হবে।

বুধবার (৩০ জুন) বাণিজ্য সচিব তপন কান্তি ঘোষের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ও কেন্দ্রীয় ডিজিটাল কমার্স সেলের প্রধান মো. হাফিজুর রহমান।

হাফিজুর রহমান বলেন, “ক্রেতা-বিক্রেতার অবস্থান ভিন্ন শহরে হলে পণ্য ডেলিভারির জন্য সর্বোচ্চ ১০ দিন সময় পাবে ই-কমার্স কোম্পানিগুলো। এই নির্দেশনা কার্যকর হলে দ্রুত বিকাশমান এই খাতটিতে শৃঙ্খলা নিশ্চিত হবে এবং সুস্থ প্রতিযোগিতা তৈরি হবে।”

আইন মন্ত্রণালয় যদি মনে করে নির্দেশিকাটি মন্ত্রিসভায় অনুমোদনের প্রয়োজন রয়েছে, তাহলে এটি জারি করতে একটু সময় লাগবে। অন্যথায় ভেটিং শেষে খুব দ্রুত এটি জারি করা হবে বলে জানান তিনি।

এছাড়া, ক্রেতারা প্রতারিত হলে এবং ই-কমার্স কোম্পানিগুলো নির্দেশনা না মানলে ক্রেতারাও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য আদালতে মামলা করতে পারবে বলে জানান তিনি। এমনকি সরকার ওই কোম্পানি বন্ধও করে দিতে পারে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.