রিকশা-ভ্যান থেকে ব্যাটারি-মোটর খুলে ফেলার সিদ্ধান্ত

গত ২০ জুন রবিবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সড়ক পরিবহন সেক্টরে শৃঙ্খলা জোরদার এবং দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে গঠিত টাস্কফোর্সের তৃতীয় সভা অনুষ্ঠিত হয়

সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধে যেসব প্যাডেল চালিত রিকশা ও ভ্যানে ব্যাটারি বা মোটর লাগানো আছে কেবলমাত্র সেসব রিকশা ও ভ্যান থেকে ব্যাটারি বা মোটর খুলে ফেলার সিদ্ধান্ত হয়েছে হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

বুধবার (২৩ জুন) গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. শরীফ মাহমুদ অপু এ তথ্য জানান।

বিজ্ঞপ্তিতে তিনি বলেন, গত ২০ জুন রবিবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সড়ক পরিবহন সেক্টরে শৃঙ্খলা জোরদার এবং দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে গঠিত টাস্কফোর্সের তৃতীয় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সেই সভায় জানানো হয়, যেসব প্যাডেল চালিত রিকশাকে ইঞ্জিন দিয়ে রূপান্তর করা হয়েছে সেসব রিকশা-ভ্যান বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এরপর অনেকেই ধারণা করেছিলেন, এ সিদ্ধান্তের মাধ্যমে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা বন্ধ করা হচ্ছে। ফলশ্রুতিতে বিভিন্ন পর্যায়ে এ সিদ্ধান্তের বিরোধিতা শুরু হয়।

তবে গতকাল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রকাশিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি স্পষ্ট করে বলা হয়, গত রবিবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সড়ক পরিবহন সেক্টরে শৃঙ্খলা জোরদারকরণ এবং দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে গঠিত টাস্কফোর্সের তৃতীয় সভায় সড়ক-মহাসড়কে দুর্ঘটনা প্রতিরোধে যেসব প্যাডেল চালিত রিকশা ও ভ্যানে ব্যাটারি ও মোটর লাগা্নো হয়েছে, শুধুমাত্র সেসব রিকশা ও ভ্যান থেকে ব্যাটারি ও মোটর খুলে ফেলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.