এবার ভুটানের একটি অংশ নিজের দাবী করল চীন
সীমান্তে অনড় চীনা সেনা, ভারতের ট্যাংক মোতায়েন

ডেক্স রির্পোট:
এবার ভুটানের এলাকা নিজের বলে দাবি করেছে চীন। সীমান্ত মালিকানা নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে ভারতনিয়ন্ত্রিত লাদাখের চীন সীমান্তবর্তী গালওয়ান উপত্যকায় ভারতীয় সেনাদের সঙ্গে সম্প্রতি রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে চীন। দেশটি এবার ভুটানের একটি এলাকা নিজের বলে দাবি করছে। সারা বিশ্ব যেখানে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত। এই ভাইরাস মহামারি রুপ নিয়েছে। চীন থেকেই এই কোভেট-১৯ এর উৎপত্তি হয়েছিল। পর্যায়ক্রমে তা সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে।
এদিকে পূর্ব লাদাখে সীমান্তবিরোধ নিয়ে ভারত ও চীনের মধ্যে উত্তেজনা বেড়েছে। ভারত এই পরিস্থিতি শান্তিপূর্ণ উপায়ে সমাধানের কথা বলছে। গত মঙ্গলবার নতুন করে দুই দেশের জ্যেষ্ঠ সামরিক কমান্ডাররা বৈঠকেও বসেছেন। তবে সীমান্ত থেকে চীন সেনা প্রত্যাহার না করায় সংঘাত যদি শুরু হয়ে যায়, তাহলে তা মোকাবিলার জোরেশোরে প্রস্তুতিও চালিয়ে যাচ্ছে ভারত। ১৫ জুন চীনের সেনাবাহিনীর সঙ্গে সংঘাতের পর দ্রুত ভিত্তিতে কিছু রাফায়েল যুদ্ধবিমান দিতে ফ্রান্সের কাছে অনুরোধ করেছে ভারত , আগামী মাসে যার ছয়টি বিমান পৌঁছাবে। গালওয়ানে ছয়টি টি-৯০ ক্ষেপণাস্ত্রবাহী ট্যাংক ও কাঁধে করে নেওয়া ট্যাংকবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র পদ্ধতি মোতায়েন করা হয়েছে বলেও জানা যাচ্ছে।
গতকাল হিন্দুস্তান টাইমস-এর খবরে বলা হয়েছে, গালওয়ান নদীর তীরবর্তী চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মির (পিএলএ) সশস্ত্র সদস্য ও সেনাছাউনি বাড়ানোর বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর ভারতের সেনাবাহিনী টি-৯০ বিশমা ট্যাংক মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নেয়।

১৫ জুন পূর্ব লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় চীনা সেনাবাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় সেনা নিহত হওয়ার কথা জানায় ভারত সরকার। ওই ঘটনার পর দুই দেশের উচ্চপর্যায়ের সেনা কর্মকর্তাদের বৈঠকও হয়েছিল। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার কাছে থাকা সেনাছাউনিটি সরিয়ে নেওয়ার কথা বললেও চীন তা বাস্তবায়ন করেনি।
এদিকে ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, বেশ কিছু চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করার জেরে নতুন করে টানাপোড়েনের মধ্যেই সীমান্তে উত্তেজনা কমাতে দুই দেশের সেনাবাহিনীর কোর কমান্ডার স্তরের তৃতীয় বৈঠক শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে পূর্ব লাদাখের চুশুল সীমান্ত লাগোয়া চীন-নিয়ন্ত্রিত মলডোতে অনুষ্ঠিত এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.