স্টাফ রিপোর্টার : বীর মুক্তিযোদ্ধা, প্রখ্যাত গীতিকার, সুরকার ও সঙ্গীত পরিচালক আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল আর নেই।

মঙ্গলবার সকালে তিনি রাজধানীর আফতাবনগরে নিজ বাসায় ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলের ছেলে সামির আহমেদ সংবাদমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

সামির বলেন, ‘হার্ট অ্যাটাকে বাবার মৃত্যু হয়। রাতে হার্ট অ্যাটাকে বাসায় মৃত্যু হয় তার। পরে তাকে চেকাপের জন্য মহাখালীর ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।’

হাসপাতাল থেকে তার মরদেহ বাড়িতে নেয়া হয়েছে। কবে, কখন, কোথায় মরদেহ দাফন করা হবে সে বিষয়ে পরে জানানো হবে বলে তিনি জানান। তবে তিনি এখনই চাইছেন না সাংবাদিকরা এটা নিয়ে কিছু করুক। তিনি বলেন, ‘আমরা চাইছি না এখনই সাংবাদিকরা আমার বাসায় এসে ভীড় করুক। আমাদের কিছু প্রাইভেসি প্রয়োজন। সময় হলে আমি নিজ থেকে সব জানাবো।’

মৃত্যুকালে আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলের বয়স হয়েছিল ৬৩ বছর। আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলকে সকাল সোয়া ৬টার দিকে রাজধানীর আনা হলে চিকিৎসকরা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে জানান, তিনি সম্ভবত ভোর সাড়ে ৫টার দিকে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল ১৯৫৭ সালের  ১ জানুয়ারি জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একাধারে গীতিকার, সুরকার এবং সঙ্গীত পরিচালক। সত্তর দশকের শেষ লগ্ন থেকে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পসহ সংগীত শিল্পে সক্রিয় ছিলেন। রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ সম্মান একুশে পদক, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার এবং রাষ্ট্রপতির পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন এই নক্ষত্র মানুষ।  ১৯৭১ সালে মাত্র ১৫ বছর বয়সে তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.