স্পোর্টস ডেস্ক : মেসি-সুয়ারেজদের কাছে পাত্তাই পায়নি লেগানেস। রোববার রাতে ন্যু ক্যাম্পে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত এগিয়ে থেকেই খেলা শেষ করে বার্সেলোনা। চ্যাম্পিয়নস লিগের কথা মাথায় রেখে নিজের সেরা ছাত্র মেসিকে শুরুর একাদশে রাখেননি ভালভার্দে। তবে মেসির অভাব খুব একটা বুঝতে দেননি ডেম্বেলে-সুয়ারেজরা। ৩-১ গোলের ব্যবধানে সহজ জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে স্প্যানিশ জায়ান্টরা।

ম্যাচের শুরুতেই গোলের সুযোগ পায় বার্সেলোনা। দশম মিনিটে ডেম্বেলের দুর্দান্ত পাসে ঠিকমতো পা ছোঁয়াতে পারলেই এগিয়ে যেত কাতালানরা। সুবিধাজনক জায়গায় কেউ না থাকায় গোলবঞ্চিত হয় বার্সেলোনা। প্রথমার্ধেই গোলের সহজ সুযোগ হাতছাড়া করেন কুতিনহো।

অবশ্য গোলের জন্য খুব বেশি হাহাকার করতে হয়নি বার্সেলোনার খেলোয়াড়দের। প্রথমার্ধের ৩২তম মিনিটে ডেম্বেলের গোলে এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। দ্বিতীয়ার্ধের ৫৭তম মিনিটে ব্রাইথওয়েটের গোলে সমতায় ফেরে অতিথিরা। কিন্তু খুব বেশি সময় সমতা ধরে রাখতে পারেনি লা লিগায় পয়েন্ট টেবিলের নিচের দিকে থাকা লেগানেস।

৬৪তম মিনিটে কার্লেস আলেনাকে বসিয়ে বদলি খেলোয়াড় হিসেবে মেসিকে নামানো হয়। এর দুই মিনিট পর চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন দেম্বেলে। ৭১তম মিনিটে মেসির দুর্দান্ত শট রুখে দেন লেগানেসের গোলরক্ষক। কিন্তু পুরোপুরি বিপদমুক্ত করতে পারেননি। ছুটে গিয়ে আলগা বল টোকা দিয়ে জালে পাঠান সুয়ারেজ। এই নিয়ে চলতি লিগে উরুগুয়ের স্ট্রাইকারের গোল হলো ১৫টি।

৬৪তম মিনিটে অ্যালেনার বদলি হিসেবে নামা মেসি গোল করেন যোগ হওয়া সময়ে। লেগানেসের গোলরক্ষক কোনোমতে মেসির শট ফিরিয়ে না দিলে সুয়ারেজের করা গোলটিও মেসিই পেতেন। মেসির শট পুরোপুরি ক্লিয়ার না হলে ফিরতি বল পেয়ে সহজেই গোল করেন সুয়ারেজ। চলতি মৌসুমে লিগে কের ফেলেন নিজের ১৫তম গোলটিও। ডেম্বেলে-সুয়ারেজ-মেসির নৈপুণ্যে হেসেখেলে জয় পায় ভালভার্দের শিষ্যরা।

এ জয়ে ২০ ম্যাচে ৪৬ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে বার্সেলোনা। সমান ম্যাচ খেলে ৪১ পয়েন্ট নিয়ে বার্সার ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে তালিকায় ৩ নম্বরে আছে রিয়াল মাদ্রিদ। ২২ পয়েন্ট নিয়ে লেগানেসের অবস্থান তালিকার ১৪ নম্বরে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.