আন্তর্জাতিক ডেস্ক : লিবিয়া উপকূলে আলাদা দুটি জাহাজডুবির ঘটনায় বহু হতাহতের আশঙ্কা করা হচ্ছে। ইতালিয়ান নৌ-বাহিনী লিবিয়া উপকূলে ১১৭ জন যাত্রীবাহী একটি জাহাজ ডুবে যাওয়ার খবর নিশ্চিত করেছে। তাছাড়া মরোক্ক ও স্পানিশ কর্তৃপক্ষ ভূমধ্যসাগরের পশ্চিম উপকূলে হারিয়ে যাওয়া সেই জাহাজের খোঁজ করছে। সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত ১৭০ জন অভিবাসী প্রাণ হারিয়েছেন বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হচ্ছে।

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থার (ইউএনএইচসিআর) দেওয়া সংবাদ বিজ্ঞপ্তির বরাতে এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানিয়েছে ব্রিটেন ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার মুখপাত্র ফ্লাবিও ডি গিয়াসোমো বলেন, প্রাণে বেঁচে ফেরা তিন আরোহী আমাদের জানিয়েছেন লিবিয়ার উদ্দেশে যাত্রা করা ওই জাহাজে ১২০ জন অভিবাসী ছিলেন।

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা এককভাবে এই মৃত্যুর সংখ্যা নিশ্চিত করতে পারছে না। ২০১৮ সালে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দেয়ার সময় ২ হাজার ২০০ জনের বেশি অভিাবসীর মৃত্যু হয়।

জাতিসংঘ শরণার্থী বিষয়ক সংস্থাটির হাই কমিশনার ফিলিপ্পো গ্রান্ডি এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলেন, ‘ইউরোপ যাওয়ার পথে গত বছর সর্বোচ্চসংখ্যক মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আমরা সব দেখেশুনে চোখ বুজে থাকতে পারি না। সাগরে এমন মৃত্যুর মিছিল থামাতে হলে আমাদের কোনো চেষ্টা বাদ রাখা উচিত না।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.