স্টাফ রিপোর্টার : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের টি-টোয়েন্টি ও টেস্ট অধিনায়ক সাকিব আল হাসান নির্বাচন করবেন না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। শনিবার (১০ নভেম্বর) রাতে তিনি বলেন, ‘আমি সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেছি। নির্বাচন করব না।’

তবে আগে নির্বাচন করার কথা জানিয়ে এখন কেন সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করলেন-এমন প্রশ্নের জবাবে কোনো মন্তব্য করেননি সাকিব।

রোববার তার দলীয় মনোনয়নপত্র কেনার কথা ছিল। এর আগে সাকিব নিজেই বলেছিলেন, তিনি মাগুরা-১ আসনের জন্য তার মনোনয়নপত্র জমা দেবেন।

শনিবার সকালে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানান, সাকিব-মাশরাফি দুজনই আগামীকাল মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করবেন। তাদের দুজনকেই সাক্ষাতের জন্য যেতে বলা হয়েছে।

সাকিবকে খেলা ‘চালিয়ে যেতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী’

ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম তুলছেন বলে দুপুরে দলটির পক্ষ থেকে জানানো হলেও রাতে প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে ভিন্ন বার্তা আসার কথা জানা গেছে। প্রধানমন্ত্রী সাকিবকে খেলা চালিয়ে যেতে বলেছেন বলে তার কার্যালয়ের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

সাকিব ও মাশরাফি বিন মর্তুজা একাদশ সংসদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী হতে রোববার মনোনয়ন ফরম সংগ্রহের আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন বলে দুপুরে জানান দলটির উপ-দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া। তিনি বলেছিলেন, ‘তারা (মাশরাফি ও সাকিব) আমাদের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে ফোন করে জানিয়েছেন, আগামীকাল (রোববার) মনোনয়ন ফরম তুলবেন তারা।’

মাশরাফি নড়াইল এবং সাকিব মাগুরা থেকে নির্বাচনে অংশ নিতে চান বলে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে জানানো হয়। পরে রাতে সাকিব গণভবনে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেন বলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী তাকে বলেন, ‘সামনে বিশ্বকাপ আছে। তুমি খেলা চালিয়ে যাও।’

তাৎক্ষণিকভাবে এ বিষয়ে সাকিবের বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে মাশরাফি রোববার মনোনয়ন ফরম তুলতে পারেন বলে জানান ওই কর্মকর্তা।

গত বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) নির্বাচন কমিশন একাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পরদিন থেকে আওয়ামী লীগ মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু করেছে। ধানমণ্ডির কার্যালয়ে এই কার্যক্রম চলছে।

টেস্ট দলের অধিনায়ক সাকিবের বাড়ি মাগুরা সদরে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.