আন্তর্জাতিক ডেস্ক : থাইল্যান্ডের গুহা থেকে ‘অবিশ্বাস্য ভাবে’ জীবিত উদ্ধার হওয়া ওয়াইল্ড বোর ফুটবল দলের তিন কিশোর খেলোয়াড় ও তাদের কোচকে নাগরিকত্ব দিয়েছে থাইল্যান্ডের সরকার। বুধবার (৮ আগস্ট) এক অনুষ্ঠানে তাদেরকে নাগরিকত্বের সনদপত্র তুলে দেওয়া হয়।

গত মাসে তাদেরকে যখন গুহা থেকে উদ্ধারে অভিযান হয় তখন তাদের নাগরিকত্ব না থাকার বিষয়টি প্রথম জানা যায়। কেননা দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশটিতে কমপক্ষে ৪ লাখ ৮০ হাজার রাষ্ট্রহীন মানুষ বসবাস করে। ওই ৩ কিশোর ও তাদের কোচও রাষ্ট্রহীনের তালিকায় ছিল।

বিষয়টি জানাজানি হলে তাদের নাগরিকত্বের আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্নের কাজ দ্রুতগতিতে শুরু হয়।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Aug/09/1533794151449.jpg

কোচ এক্কাপল চানটাওয়াং ও সহ ৩ কিশোর থাইল্যান্ডে জন্মগ্রহণ করলেও তাদের থাই নাগরিকত্ব ছিল না। কোচ এক্কাপল তাই লুই সম্প্রদায় ও তিন কিশোর বিভিন্ন আদিবাসী সম্প্রদায়ের সদস্য। যারা শত শত বছর ধরে থাইল্যান্ড, মিয়ানমার, লাওস ও চীনের খণ্ডিত ভূমি যা গোল্ডেন ট্রায়াঙ্গল হিসেবে পরিচিত থাইল্যান্ডের কেন্দ্রে অবস্থিত মায়ে সাইয়ে বসবাস করে আসছেন। সংখ্যায় এরা প্রায় পাঁচ লাখ। থাইল্যান্ডে তারা রাষ্ট্র পরিচয়হীন।

উল্লেখ্য, গত ২৩ জুন বেড়াতে গিয়ে দেশটির উত্তরাঞ্চলের চিয়াং রাই প্রদেশের থ্যাম লুয়াং গুহায় আটকা পড়েন ওয়াইল্ড বোর ফুটবল দলের ১২ কিশোর ফুটবলার ও তাদের কোচ। এর ৯ দিন পর তাদেরকে দুই ব্রিটিশ ডুবুরি খুঁজে বের করে। এর আরো ছয়দিন পর গুহা থেকে তাদেরকে ধাপে ধাপে উদ্ধার করে বের করে আনা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.