আন্তর্জাতিক ডেস্ক : উত্তর-পশ্চিম ইউরোপীয় দেশ ডেনমার্কে বোরকা নিষিদ্ধের প্রতিবাদে বুধবার (১ আগস্ট) রাজধানী কোপেনহেগেনে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়েছে। প্রকাশ্যে বোরকাসহ মুখ ঢাকা যায় এমন যেকোনো ধরনের পোশাক নিষিদ্ধ করে গত মে মাসের শেষের দিকে আইন পাস করা হলেও বুধবার থেকে তা কার্যকর হয়।

ডেনমার্কের ক্ষমতাসীন উদারপন্থী দল ভেনস্ত্রের নেতা মার্কাস নুথ বলেন, মুসলিম নারীদের এই পোশাকটি (বোরকা) পরিধান করা ‘খুবই অন্যায় কাজ।’

দেশটিতে বিতর্কিত এই আইনের বিরোধিতা করছে, ‘পার্টি রিবেলস’ নামে একটি অ্যাক্টিভিস্ট গ্রুপ। ওই গ্রুপেরই একজন সক্রিয় কর্মী সাশা অ্যান্ডারসন একটি ধর্মীয় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর বৈষম্যমূলক আইন চাপিয়ে দেওয়ার প্রতিবাদে বুধবার বিক্ষোভের ডাক দেন। অবশ্য এই আইনের সমর্থনেও বেশ কয়েকটি গ্রুপ সমাবেশ করার পরিকল্পনা করছে।

২১ বছর বয়সী সাবিনার লক্ষ্য একজন ভালো শিক্ষক হওয়া। এ লক্ষ্যেই তিনি এখন পড়াশোনা করছেন। আরো অনেক মেয়ের সঙ্গে তিনি বিক্ষোভে যোগ দিয়েছেন। নারীদের নিজস্ব পদ্ধতিতেই তাদের পরিচিতি প্রকাশ করতে দেওয়া উচিত বলে মনে করেন তিনি। বর্তমানে এ বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টিতে কাজ করছেন তিনি।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Aug/02/2018-Aug-02_07_53_50_news_post.jpg

উল্লেখ্য, গত মে মাসের শেষের দিকে পার্লামেন্টে ‘বোরকা ব্যান’ বা বোরকা নিষিদ্ধ সংক্রান্ত বিলটি উত্থাপন করে মধ্য-ডানপন্থী জোট সরকার। ৭৫-৩০ ভোটে বিলটি পাস হয়ে আইনে পরিণত হয়। আর ভোটদানে বিরত ছিলেন ৭৪ জন।

সরকার অবশ্য দাবি করেছে, বিশেষ কোনো ধর্মের প্রতি বিদ্বেষপ্রসুত হয়ে এই আইন পাস করা হয়নি।

১ আগস্ট থেকে কার্যকর হওয়া আইনটি কেউ অমান্য করলে প্রথম দফায় ১ হাজার ডেনিশ ক্রোনার এবং দ্বিতীয় দফায় ১০ হাজার ক্রোনার জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে।

এদিকে ইউরোপে নিয়োজিত অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের পরিচালক গাউরি ফন গুলিক বলেছেন, ‘প্রত্যেক নারীরই তাদের পছন্দের পোশাক পরিধানের স্বাধীনতা থাকা উচিত। তাদের ধর্মীয় পরিচয় ও বিশ্বাসকে তুলে ধরে এমন পোশাকও তারা পরতে পারেন। যে সব মুসলিম নারীরা হিজাব ও বোরকা পরতে পছন্দ করেন, তাদের ওপর এই আইনের নেতিবাচক প্রভাব পড়বে।’

তিনি বলেন, ‘মানুষের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে কখনো কখনো এই বাধানিষেধ থাকতে পারে। কিন্তু এই সার্বজনীন নিষেধাজ্ঞা প্রয়োজনও না, উপযোগীও না। এটি ব্যক্তির ব্যক্তি স্বাধীনতা ও ধর্মীয় স্বাধীনতা প্রকাশের ক্ষেত্রে একটা বাধা।’

অনেক আগে থেকেই ইউরোপের ফ্রান্স, বেলজিয়াম, নেদারল্যান্ডস, বুলগেরিয়া ও জার্মানিতে বোরকা নিষিদ্ধ। এবার ব্যাপক বিক্ষোভ ও প্রতিবাদের মুখে ডেনমার্কেও তা কার্যকর হলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.