বিনোদন ডেস্ক : ভাঙনের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে নাট্যভিনেত্রী শ্রাবন্তীর সংসার। নাট্যনির্মাতা চয়নিকা চৌধুরী ফেসবুকে জানান, বিজ্ঞ ২য় অতিরিক্ত সহকারী জজ ও পারিবারিক আদালত ঢাকা, জনাব ইশরাত জাহান আজ দুই পক্ষের উপস্থিতিতে দীর্ঘ সুনানি সাপেক্ষে ইপশিতা শবনম শ্রাবন্তীকে দেয়া বিবাদী খোরশেদ আলমের তালাকের নোটিশের কার্যক্রম পারিবারিক মোকাদ্দমা ৬৬৯/১৮ নিষ্পত্তি না হওয়া পযর্ন্ত স্থগিত করেছেন।

তিনি আরও লেখেন, অজস্র কৃতজ্ঞতা সৃষ্টিকর্তার প্রতি। পুরো প্রক্রিয়াটি করেছেন শ্রাবন্তীর পক্ষে সিনিয়র এডভোকেট ফওজিয়া করিম ফিরোজ, ফিরোজা পারভীন লাকী এবং মলয় সাহা। দেশের আইন সত্যের পথে আছে। এই প্রথম জজকোর্টে নিজের চোখে দেখলাম।

শ্রাবন্তী ও খোরশেদ আলমকে আবারও একসঙ্গে দেখতে চান এই নির্মাতা। তিনি বলেন, রাবিয়া ও আরিশা (শ্রাবন্তী-খোরশেদ আলমের সন্তান) মা-বাবাকে একসাথে নিয়ে হাসি খুশি থাকো, আনন্দে থাকো। এই প্রার্থনা। আলম ভাই এবং শ্রাবন্তী তোমাদের আবার একসাথে দেখার আশায়, এই কামনা করি বিধাতার কাছে।

গত ৭ মে শ্রাবন্তীকে তালাকের নোটিশ পাঠিয়েছেন খোরশেদ আলম। বগুড়া সদরের কালীতলার শিববাড়ি সড়কে শ্রাবন্তীর বাবার বাসার ঠিকানায় এই নোটিশ পাঠানো হয়।

২০১০ সালের ২৯ অক্টোবর ইপশিতা শবনম শ্রাবন্তীর সঙ্গে বিয়ে হয় মোহাম্মদ খোরশেদ আলমের। এই দম্পতির ঘরে দুটি কন্যা সন্তান রয়েছে। বড় মেয়ে রাবিয়া আলমের বয়স ৭ আর ছোট মেয়ে আরিশা আলমের সাড়ে ৩ বছর। শ্রাবন্তী দীর্ঘদিন যাবৎ যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী। গত ২৫ জুন তিনি দেশে ফিরেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.