ডেস্ক রিপোর্ট: রাজশাহী, সিলেট ও বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। সোমবার (৩০ জুলাই) সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে চলবে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে নির্বাচনের কমিশনের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে সব ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

নির্বাচনকে ঘিরে তিন সিটিতেই বিরাজ করছে উৎসবমুখর পরিবেশ। সকাল থেকেই ভোটাররা নির্বিঘ্নে ভোট দিয়ে তাদের পছন্দের প্রার্থী নির্বাচিত করার অপেক্ষায় প্রহর গুণছেন। ভোট উপলক্ষে সিটি এলাকায় সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে এবং সব সরকারি বেসরকারি অফিস, আদালত, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, ব্যাংকসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

এই তিন সিটিতেও ২৫৭টি কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে।

রাজশাহী, সিলেট ও বরিশাল সিটি নির্বাচনে বিভিন্ন দল ও স্বতন্ত্র মিলিয়ে মেয়র প্রার্থী হিসেবে লড়ছেন ১৯ জন। কাউন্সিলর পদে সংরক্ষিত আসনসহ ৫২২ জন এবার প্রার্থী হয়েছেন।

এদিকে তিন সিটির ১৫টি কেন্দ্রে ইলেকট্রিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার করা হচ্ছে। এর মধ্যে রাজশাহী ও সিলেটের দুটি কেন্দ্রে ও বরিশালের ১১টি কেন্দ্রে ইভিএম ব্যবহার করা হচ্ছে।

নির্বাচনে রাজশাহী সিটিতে সৈয়দ আমিরুল ইসলাম, সিলেট সিটিতে মো. আলিমুজ্জামন ও বরিশাল সিটিতে মুজিবুর রহমান রিটানিং কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করছেন।

নির্বাচন উপলক্ষে রাজশাহীতে ১৫ প্লাটুন, বরিশালে ১৫ প্লাটুন এবং সিলেটে ১৪ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রে মোতায়েন থাকবেন ২২ জন পুলিশ ও ভিডিপি সদস্য। তবে অতি গুরুত্বপূর্ণ বা ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রে ২৪ জন করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী নিয়োগ করা হয়েছে। এছাড়া ৮৭ প্লাটুন র‌্যাব সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। এর মধ্যে রাজশাহী ও বরিশালে ৩০ প্লাটুন এবং সিলেটে ২৭ প্লাটুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.