চট্টগ্রাম প্রতিনিধি : চট্টগ্রামে রাইড শেয়ারিং সার্ভিস ‘পাঠাও’ এর একটি গাড়িতে এক নারী চিকিৎসককে ধর্ষণ চেষ্টার ঘটনায় চালককে আটক করা হয়েছে।

শনিবার (২৮ জুলাই) গভীর রাতে নগরীর বন্দর নিউমুরিং আবাসিক এলাকা থেকে ওই চালককে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তবে এ ঘটনায় এখনো কোনো মামলা হয়নি।

নগর পুলিশের সহকারী কমিশনার (ডাবল মুরিং জোন) আশিকুর রহমান জানান, গত ২৪ জুলাই (মঙ্গলবার) বিকেলের দিকে পাঠাও সার্ভিসের কার ব্যবহার করে বন্দরটিলা থেকে এক নারী চিকিৎসক ভাটিয়ারি যাচ্ছিলেন। এ জন্য বন্দরটিলা থেকে টোল রোড ব্যবহার করছিলেন চালক। টোল রোডটি কিছুটা নির্জন হওয়ায় সেখানে রাস্তার একপাশে গাড়ি থামিয়ে ওই চিকিৎসককে ধর্ষণের চেষ্টা করেন চালক। কিন্তু ওই নারীর চিৎকারে আশপাশের মানুষ জড়ো হলে তিনি দ্রুত গাড়ি থেকে বেরিয়ে আসেন। এসময় ওই নারীর ব্যাগ ও মোবাইল ফোন গাড়িতেই ছিল। এই অবস্থায় গাড়িটি নিয়ে দ্রুত পালিয়ে যান চালক।

সেদিন রাতেই পাহাড়তলী থানায় অভিযোগ করতে যান ওই নারী। তবে এক পর্যায়ে অভিযোগ না দিয়েই ফিরে যান তিনি। শুরুতে পুলিশকে স্রেফ মোবাইল চুরির ঘটনা বললেও বিস্তারিত বলেননি তিনি। পরে বিষয়টি পুলিশ জানতে পারে।

তবে মোবাইল চুরির অভিযোগ পেয়েই পুলিশ ওই চালককে ধরতে চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে চুরি যাওয়া মোবাইল ফোনটি ট্র্যাক করে নগরীর বন্দর নিউমুরিং আবাসিক এলাকা থেকে চালককে আটক করা হয়।

পাহাড়তলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। চালকের নাম মিজানুর রহমান (৩৯)। তার কাছ থেকে ওই নারী চিকিৎসকের ব্যাগ ও মোবাইল ফোনও উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান ওসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.