ডেস্ক: রাজধানী ঢাকায় মেট্রোরেল প্রকল্প এখন দৃশ্যমান বাস্তবতা। অনেক স্থানেই এই রেল লাইন স্থাপনার জন্য পিলার বসে গেছে। কোথাও কোথায় কাজ আরও বেশি এগিয়ে। শিগগিরই নগরবাসী এর আরও বাস্তব রূপ দেখতে পাবে বলে জানিয়েছেন সেতু ও সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শুক্রবার (২৭ জুলাই) বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে মেট্রোরেল প্রকল্পের কাজ পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের জানান, মেট্রোরেল প্রকল্পের প্রাথমিক পর্যায়ের কাজ (উত্তরা থেকে আগারগাঁও) ২০২৪ সালে শেষ হওয়ার কথা থাকলেও তা শেষ হবে ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে। এ ছাড়াও (আগারগাঁও থেকে মতিঝিল) দ্বিতীয় পর্যায়ের কাজ ২০২০ সালের মধ্যে শেষ হবে।

এ সময় তিনি মেট্রোরেল প্রকল্পের কাজের অগ্রগতি দেখেন এবং কাজে নিয়োজিত জাপানি প্রকৌশলী ও সংশ্লিষ্টদের কাছে প্রকল্পের খোঁজ খবর নেন।

নির্বাচন নিয়ে বিএনপির সঙ্গে আনুষ্ঠানিক সংলাপের প্রয়োজন নেই বলে মন্তব্য ক‌রে তি‌নি ব‌লেন, রাজনীতিতে ওয়ার্কিং আন্ডারস্ট্যান্ডিংয়ের (সম্পর্ক) জন্য বিএনপির নেতাদের সঙ্গে ফোনে কথা হতে পারে।

কাদের বলেন, ‘নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার বাকি আর মাত্র পৌনে তিন মাস। এর মধ্যেই আনুষ্ঠানিক সংলাপের কোনো প্রয়োজন নেই। সব কিছুই কি আনুষ্ঠানিক হতে হবে। চোখে দেখা দেখি না হোক। টেলিফোনে তো অনানুষ্ঠানিক কথাবার্তা হতে পারে। এতে করে নিজেদের দূরত্ব কমে যায়। টেলিফোনে কথা বললে সমস্যা কোথায়।’

বিএনপির সঙ্গে আলোচনায় বসার বিষয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে যে বক্তব্য আসছে সে বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আমি সংলাপের কথা বলিনি। আমি বলেছি বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল সাহেব কখনও আমায় টেলিফোন করেন না।’

জোট সম্প্রসারিত হবে কি-না জানতে চাইলে কাদের বলেন, ‘এটা মেরুকরণের বিষয়। নির্বাচন আসলে পোলারাইজেশন হবে। দেশে অ্যালাইন্স পলিটিক্স তো আছে। অনেকে জোটে আসতে চাইছে। একারণে তা বাড়তেও পারে। অনেকে আবার আলাদা জোট গঠন করছে। শেষপর্যন্ত এটা কোথায় গিয়ে দাঁড়ায় তা দেখা যাবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.