নিজস্ব প্রতিবেদক : নৌমন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, অনতিবিলম্বে যুদ্ধাপরাধীদের তালিকা করে বিচার করতে হবে এবং তাদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত ঘোষণা করতে হবে। তা না হলে দেশে শান্তি প্রতিষ্ঠিত হবে না, তারা হতে দেবে না।

আজ রবিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক গণস্বাক্ষর কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন। শ্রমিক কর্মচারী পেশাজীবী মুক্তিযুদ্ধ সমন্বয় পরিষদ এবং মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রজন্ম সমন্বয় পরিষদ এ গণস্বাক্ষর কর্মসূচির আয়োজন করে।

নৌমন্ত্রী ব‌লেন, ইসলামী ছাত্রশিবির ২০০৪ সালে সর্বপ্রথম চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধা কোটা বাতিলের জন্য প্রকাশ্যে দাবি উত্থাপন করে। এরপরই ‘সাধারণ ছাত্রছাত্রীদের কোটা সংস্কার’ নামে আন্দোলন করা হয়। তারাই সুকৌশলে মুক্তিযোদ্ধা কোটা বাতিলের আন্দোলনকে বেগবান করছে। তারা কোটা বাতিলে নানা রকম ইন্ধন দিচ্ছে।

আজকের এই গণস্বাক্ষর কর্মসূচিতে, জামাত-শিবির যুদ্ধাপরাধী ও স্বাধীনতা বিরোধীদের সন্তান ও তাদের উত্তরসূরিদের সরকারি চাকরিতে নিয়োগ দেওয়া বন্ধসহ ৬ দফা দাবি জানানো হয়েছে।

এই গণস্বাক্ষর কর্মসূচিতে আরো উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা সন্তান ও প্রজন্ম পরিষদের সদস্যবৃন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.