নিজস্ব প্রতিবেদক : ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড সেন্টারের (আইটিসি) উদ্যোগে বাংলাদেশের নারী উদ্যোক্তাদের জন্য ‘কমনওয়েলথে শি-ট্রেডস’ শীর্ষক প্রকল্প রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে উদ্বোধন করা হয়েছে।
নারী উদ্যোক্তা এবং নারী মালিকানাধীন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের জন্য বাণিজ্য, আন্তর্জাতিক বাজারে প্রবেশের লক্ষ্যে সক্ষমতা, ব্যবসায়ের উৎপাদনশীলতা বাড়ানোর লক্ষ্যে নিবিড় প্রশিক্ষণ এবং পরামর্শমূলক কার্যক্রমের মাধ্যমে ২০২০ সালের মধ্যে দুই মিলিয়ন ব্রিটিশ পাউন্ডের (৩৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার) বিপণনের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে ৩ হাজার নারী উদ্যোক্তার ক্ষমতায়নের লক্ষ্যে কাজে করবে।
দুই বছর মেয়াদী এ প্রকল্প সমন্বয় ও বাস্তবায়ন করবে আইটিসি।  বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে নারীর ক্ষমতায়নে আইটিসির সাথে একযোগে কাজ করবে বেসিস।
বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে প্রকল্প সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন আইটিসির উইমেন অ্যান্ড ট্রেড প্রোগ্রামের সিনিয়র প্রোগ্রাম অফিসার নিকোলাস শালাইফার, বেসিসের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ফারহানা এ রহমান এবং সহ-সভাপতি (প্রশাসন) শোয়েব আহমেদ মাসুদ।
আনুষ্ঠানিকভাবে এ প্রকল্প চলতি বছরের এপ্রিলে ২০১৮ মাসে চালু হয়। লন্ডনে কমনওয়েলথ বিজনেস ফোরাম (সিবিএফ) এর উদ্বোধন করেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে। এই প্রকল্পে অর্থায়নে সহায়তা করছে যুক্তরাজ্যের ডিপার্টমেন্ট অব ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট (ডিএফআইডি)।
সিট্রেডস কমনওয়েলথ বাংলাদেশ – নারী উদ্যোক্তাদের ব্যবসায়ের সম্মুখ চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার দক্ষতা অর্জন করবে, যার মধ্যে ভূমি, বিকাশমান ব্যবসা এবং অন্যান্য প্রাতিষ্ঠানিক চ্যালেঞ্জগুলির মধ্যে আর্থিক প্রাতিষ্ঠানিক প্রক্রিয়ায় রয়েছে।
আইটিসি’র উইমেন অ্যান্ড ট্রেড প্রোগ্রামের সিনিয়র প্রোগ্রাম অফিসার নিকোলাস  শালাইফার বলেন,  ‘বাংলাদেশে নারী উদ্যোক্তারা কমনওয়েলথের শি-ট্রেডস মাধ্যমে সময়োপযোগী সমর্থন পাবেন। তারা তাদের বিদ্যমান বাজার প্রতিনিধিত্বকে এগিয়ে নিয়ে যাবে এবং বৈশ্বিক বাণিজ্যের জন্য আরো বেশি সুযোগ পাবে।’
কমনওয়েলথ এ প্রকল্পে মাধ্যমে, লিঙ্গীয় প্রতিক্রিয়াশীল নীতিগুলি বাস্তবায়ন এবং সর্বোত্তম পদ্ধতিগুলি ভাগ করার জন্য উন্নত সরঞ্জাম এবং তথ্য দিয়ে সরকারগুলোকে সাহায্য করবে। তথ্যপ্রযুক্তি খাতের নারীদের ক্ষমতায়নে এক্ষেত্রে প্রকল্প বাস্তবায়নে সাহায্য করবে বেসিস। শুধু ঢাকা নয়, দেশজুড়ে প্রকল্প বিস্তৃত করবে আইটিসি।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বেসিসের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ফারহানা এ রহমান বলেন, আইটিসির সাথে দীর্ঘদিন ধরেই কাজ করে আসছে বেসিস। শি-ট্রেডস এর মতো বৃহৎ পরিসরের প্রকল্প বাস্তবায়নে বেসিস আইটিসির সাথে কাজ করবে। বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতে নারীদের অংশিদারিত্ব দিন দিন বাড়ছে। শি-ট্রেডস প্রকল্পের মাধ্যমে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে নারীদের অবস্থান সুদৃঢ় করতে বেসিস আইটিসির সাথে একযোগে কাজ করে যাবে।
প্রাথমিকভাবে চারটি কমনওয়েলথ দেশ এ প্রকল্পের আওতায় আসবে : বাংলাদেশ, ঘানা, কেনিয়া এবং নাইজেরিয়াতে কৃষি, পোশাক ও সেবা খাতের নারী উদ্যোক্তাদের প্রতিযোগিতা বৃদ্ধিতে কাজ করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.