ডেস্ক:ইউরোপিয় ইউনিয়ন প্রযুক্তি বিশ্বের বৃহৎ প্রতিষ্ঠান গুগলকে ৫ বিলিয়ন ডলার জরিমানা করেছে। অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন সিস্টেমে অধিকাংশ ফোন নির্মাতাকে জোর করে গুগল সার্চ ইঞ্জিন ও ক্রোম ওয়েব ব্রাউজার বিল্ট ইন (নির্মাণের সময় ইনস্টল করে দেয়া) করে রাখার অভিযোগে এই জরিমানা গুণতে হবে গুগলকে।

বুধবার (১৮ জুলাই) ইইউ কমপিটিশন কমিশনার মারগ্রেথ ভেসটাগের এ ঘোষণা প্রদান করেন। তবে গুগল কর্তৃপক্ষ তাৎক্ষণিকভাবে এর বিরুদ্ধে আপিল করবে বলে জানিয়েছে।

ভেসটাগের জানান, গুগল অনেক অ্যান্ড্রয়েড ফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানকে পূর্ব থেকেই গুগল ক্রোম ইনস্টল করে রাখতে জোর করে আসছে। ফোন উৎপাদনকারীদের অ্যান্ড্রয়েডের বিকল্প সংস্করণ বিক্রির ব্যাপারেও গুগল সীমাবদ্ধ করে দেয়।

গুগলের বিরুদ্ধে আরো অভিযোগ রয়েছে এটি অ্যান্ড্রয়েডকে গুগলের আধিপত্য প্রতিষ্ঠায় ব্যবহার করে। এক বিবৃতিতে ভেস্টাগের বলেন, ‘ ইউরোপীয় ইউনিয়নের এন্টি-ট্রাস্ট নিয়মানুযায়ী এটি বেআঈনি।’

তবে গুগল এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছে। গুগলের মুখপাত্র এ্যাল ভার্নি বলেন, ‘অ্যান্ড্রয়েড সকলের জন্য আরো বেশি পছন্দের সুযোগ দিয়েছে, কম নয়। আমরা এই জরিমানার বিরুদ্ধে আপিল করবো।’

ভেস্টাগের তার চার বছরের দায়িত্বে মার্কিন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোকে একাধিকবার জরিমানা করেছেন। সিলিকন ভ্যালি ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি বিদ্বেষ থেকে এই সিদ্ধান্ত তিনি নেননি বলে ব্রাসেলসে এক সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন। গত কয়েক সপ্তাহি ধরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের মধ্যে শীতল বাণিজ্য যুদ্ধ চলছে।

‘আমি আমেরিকাকে খুব পছন্দ করি। কিন্তু আইন প্রয়োগ করতে হয় আইনের স্বার্থে, পুরো বিশ্বের আমরা এটি করি, কোন রাজনৈতিক কারণে নয় অবশ্যই।’ ভেস্টাগের বলেন।

ইইউ এর আগে ক্যাম্ব্রিজ এনালিটিকা কেলেঙ্কারির পর ফেসবুকের উপর কঠোর শর্ত আরোপ করে যেন মার্কিন এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকারী প্রতিষ্ঠানটি ইউরোপীয়ান নাগরিকদের তথ্য হাতিয়ে না নিতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.