বাসস : জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও) চীন ও ভারতের পরে অভ্যন্তরীন মৎস্য উৎপাদনকারী হিসেবে বাংলাদেশকে বিশ্বের তৃতীয় শীর্ষ দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে।
মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ আজ মৎস্য অধিদপ্তরে আয়োজিত এক প্রেস কনফারেন্সে সাংবাদিকদের বলেন, এফএও এর ২০১৮ সালের সর্বশেষ প্রতিবেদন অনুযায়ী, চীন ও ভারতের পরে জলাশয়ে মাছ উৎপাদক দেশগুলির মধ্যে বাংলাদেশ বিশ্বের তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে। জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের প্রাক্কালে, নারায়ণ চন্দ বলেন, মাছ উৎপাদনে স্বনির্ভরশীল দেশ হিসেবে বাংলাদেশ এখন প্রতিবছর মাথাপিছু মাছের চাহিদা ৬২ দশমিক ৫৮ গ্রামে পৌঁছেছে যা পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) প্রতিবেদন অনুযায়ী দৈনিক প্রোটিন চাহিদার ৬০ গ্রামের তুলনায় বেশী।
মন্ত্রী বলেন, এ খাতের ধারাবাহিক সাফল্য বজায় রাখতে এবং জনগণের সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সারা দেশে প্রতিবছর জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ ১৮ থেকে ২৮ জুলাই ভালোভাবে পালন করা হয়।
২০১৬-১৭ মৌসুমে মৎস্য উৎপাদনের পরিসংখ্যানের কথা উল্লেখ করে মৎস্য মন্ত্রী বলেন, এ অর্থবছরে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে দেশে ৮৪ হাজার মেট্রিক টন বেশি মাছ উৎপন্ন হয়েছে। তিনি সংবাদকর্মীদের জানান, ২০১৬-১৭ অর্থবছরে দেশে মৎস্য উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৪০ লাখ ৫০ হাজার মেট্রিক টন, সেখানে উৎপাদন হয়েছিল ৪১ লাখ ৩৪ হাজার মেট্রিক টন।
তিনি বলেন, মৎস্য সেক্টরের টেকসই উন্নয়ন বজায় রাখাতে সরকার জাটকা সংরক্ষণ এবং ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন, অভ্যন্তরীণ জলাশয় ও মাছের আবাসস্থলের উন্নয়ন এবং প্রাকৃতিক প্রজননের জায়গা, সামাজিক ও পরিবেশবান্ধব চিংড়ি চাষ সম্প্রসারণ, উন্নয়ন, ব্যবস্থাপনা এবং সমুদ্রের মাছের সহনশীল আহরন, মাছ সরবরাহ, সংরক্ষণ এবং মাছ ও মাছজাত পণ্য রপ্তানিসহ বিভিন্ন ধরনের আগাম কর্মসূচি গ্রহণের পাশাপাশি ২০৩০ সালের মধ্যে ২০ টি সামুদ্রিক নজরদারি চেকপোস্ট স্থাপন, সব মাছ ধরার ট্রলার ও জাহাজের লাইসেন্স প্রদান, কমপক্ষে ৫ লাখ জেলে পরিবারকে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতা এনে ২০৩০ সালের মধ্যে জেলেদের জীবনমান উন্নয়নের জন্য মডেল গ্রাম প্রতিষ্ঠা করা হবে।
মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ সচিব এম রায়সুল আলম মন্ডল, মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) গোলজার হোসেন, বাংলাদেশ ফিশারীজ ডেভেলপমেন্ট করপোরেশন (বিএফডিসি) চেয়ারম্যান দিলদার আহমেদ, বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিএফআরআই), মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.