ক্রীড়া ডেস্ক : বয়স মাত্র ১৯ হলেও রাশিয়া বিশ্বকাপ তাকে নিয়ে গেছে অনন্য উচ্চতায়। পুরো টুর্নামেন্টেই গতির ঝড় তুলে তারকাদের তারকা হয়ে উঠেছেন ফ্রান্সের কিলিয়ান এমবাপ্পে। তারই পথ ধরে শেষ পর্যন্ত টুর্নামেন্টের সেরা তরুণ ফুটবলার হয়েছেন এই ফরোয়ার্ড। সঙ্গে পেয়েছেন কিংবদন্তিদের প্রশংসা।

সেই এমবাপ্পে মহানুভবতা দিয়ে আরো একবার আলোচনায়। রাশিয়া বিশ্বকাপ থেকে আয় করা তার ৫ লাখ ডলার দান করে দিয়েছেন সুবিধাবঞ্চিত প্রতিবন্ধী শিশুদের! বিশ্বকাপের প্রতিটি ম্যাচ খেলে তিনি পেয়েছেন ২২,৩০০ ডলার। সঙ্গে বিশ্বকাপ জেতায় বোনাস হিসাবে পেয়েছেন সাড়ে তিনলাখ ডলার।

সবমিলিয়ে পুরো ৫ লাখ ডলারই দান করেছেন এমবাপ্পে। যা কীনা বাংলাদেশী মুদ্রায় ৪ কোটি ২২ লাখ টাকারও বেশি! দাতব্য প্রতিষ্ঠান প্রেইয়ার্স ডি করডেস অ্যাসোসিয়েশনকে তিনি এই অর্থ তুলে দিবেন তিনি। যারা সুবিধাবঞ্চিত প্রতিবন্দ্বী শিশুদের নিয়ে কাজ করে।

এমন উদারতার আগে মাঠের ফুটবলে সবার মন জয় করেছেন তিনি। টুর্নামেন্টে গোল করেছেন চারটি। ফাইনালেও দেখিয়েছেন যোগ্যতার পরিধি। বিশ্বকাপ ফাইনালে দ্বিতীয় টিনেজার গোল করে স্পর্শ করেছেন কিংবদন্তি পেলের রেকর্ড। ১৯৫৮’র বিশ্বকাপে প্রথম টিনেজার হিসাবে বিশ্বকাপের ফাইনালে গোল করেন পেলে। এমন সাফল্যের পর খোদ পেলেরই প্রশংসার বৃষ্টিতে ভিজেছেন এমবাপ্পে!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.