ডেস্ক : সড়ক যোগাযোগ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘যোগব্যায়াম আমাদের তরুণদের ভালো কাজে উদ্বুদ্ধ করবে, মাদকের প্রভাব থেকে দূরে রাখবে।’ বৃহস্পতিবার (২১ জুন) বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ‘আন্তর্জাতিক যোগ দিবস-২০১৮’ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

সেতুমন্ত্রী জানান, ২১ আগস্টের বোমা হামলায় তার শরীরের নানা অংশ আহত হয়। এর ফলে তিনি চাইলেই যোগব্যায়ামের আসন করতে পারেন না। তবে যোগব্যায়ামের সুফল সম্পর্কে তিনি জানেন এবং সবাইকে যোগব্যায়াম করতে পরামর্শ দেন।

‘সামঞ্জস্য ও শান্তির জন্য যোগ’ স্লোগানকে সামনে রেখে ভারতীয় দূতাবাসের আয়োজনে সকাল সাতটায় শুরু হয় এ অনুষ্ঠান। পাঁচ হাজারেরও বেশি মানুষ এতে যোগ দেন। যারা যোগব্যায়ামে অংশ নেননি তারা গ্যালারিতে বসে যোগব্যায়ামের কলাকৌশল উপভোগ করেন।

চতুর্থবারের মতো আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে শিশু, বৃদ্ধ, নারী, পুরুষসহ প্রায় সব শ্রেণির মানুষ এই যোগ দিবসে যোগ দেন। স্টেডিয়ামে প্রবেশের প্রতিটি গেটেই ছিল দীর্ঘ লাইন। ভেতরে জায়গা না পেয়ে অনেককে ফিরে যেতেও দেখা যায়।

এই অনুষ্ঠানে অনেকেই অটিজমে আক্রান্ত অথবা শারীরিক প্রতিবন্ধী শিশুদের নিয়ে আসেন। একজন অটেস্টিক শিশুর মা আতিয়া খানম বলেন, ‘১৫ মাস বয়সে আমার ছেলের অটিজম ধরা পরে। ওর শরীরের উপর নিজের নিয়ন্ত্রণ পেতে এবং ওকে মানসিক শান্তিতে রাখতে যোগব্যায়াম খুব ভালো কাজ করছে। এখন সে নিজেই অনেকটা করতে পারে।’

ধানমণ্ডি থেকে এসেছিলেন সপ্তর্ষী প্রকাশ ও তার মা। তারা যোগব্যায়ামে অংশ নেন। সপ্তর্ষীর মা জানান, তার আগে ঘুমের সমস্যা ছিল। পায়ে ব্যাথাও ছিল। যোগব্যায়ামের ফলে তিনি এখন সুস্থ আছেন।

সপ্তর্ষী এই প্রথমবারের মতো যোগ ব্যায়ামে অংশ নিলো। সে জানায়, প্রথম একটু ভয় লেগেছিল, কিছু ব্যায়াম আয়ত্বে আনতে বেগ পেতে হচ্ছে তারপরেও তার ভালো অনুভব হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ১১ ডিসেম্বর জাতিসংঘ আন্তর্জাতিক যোগ দিবসের ঘোষণা দেয়। সেই থেকে ভারতের প্রস্তাবে ১৭৫টি দেশে প্রতি বছর এ দিবস পালন করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.