নিজস্ব প্রতিবেদক : মন্ত্রিসভার বিশেষ বৈঠকে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট অনুমোদন দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি অ্যাডভোকেট আবদুল হামিদ। বিশেষ এই বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার (৭ জুন) সকাল ১১টার দিকে মন্ত্রিসভার বিশেষ বৈঠক শুরু হয়। সেখানে বাজেট অনুমোদনের পর দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সংসদে বাজেট উপস্থাপন করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সাথে নিয়ে সংসদে প্রবেশ করেবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

বাজেট উপস্থাপন করতে যাওয়ার সময়ও অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে থাকবে চিরায়ত কালো ব্রিফকেস। আজ ব্যক্তিগত ১২তম ও ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারের টানা দশম বাজেট উপস্থাপন করবেন তিনি। টানা কয়েক বছরের ধারাবাহিকতায় এবারও তিনি বাজেট উপস্থান করবেন পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে। এবারের বাজেট বক্তৃতার শিরোনাম রাখা হয়েছে ‘সমৃদ্ধ আগামী পথযাত্রায় বাংলাদেশ’।

১০৩ পৃষ্ঠার বাজেট বক্তৃতা ছাড়াও অর্থমন্ত্রী বাজেটের সংক্ষিপ্তসার, বার্ষিক আর্থিক বিবৃতি, সম্পূরক আর্থিক বিবৃতি, মধ্যমেয়াদী সামষ্টিক অর্থনৈতিক নীতি বিবৃতি, বিকশিত শিশুঃ সমৃদ্ধ বাংলাদেশ, শিশু বাজেট ২০১৮-১৯, ডিজিটাল বাংলাদেশের পথে অগ্রযাত্রাঃ হালচিত্র ২০১৮, জলবায়ু সুরক্ষা ও উন্নয়নের লক্ষ্যে বাজেট প্রতিবেদন ২০১৮-১৯, জেন্ডার বাজেট প্রতিবেদন, সংযুক্ত তহবিল প্রাপ্তি, বাংলাদেশ অর্থনৈতিক সমীক্ষা ২০১৮, মঞ্জুরী ও বরাদ্দের দাবীসমূহ ( পরিচালন ও উন্নয়ন), বিস্তারিত বাজেট উন্নয়ন, মধ্যমেয়াদী বাজেট কাঠামো এবং রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠানসমূহের ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট ওয়েবসাইটে প্রকাশসহ জাতীয় সংসদ থেকে সরবরাহ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.