বিশেষ প্রতিনিধি : আসছে বাজেটে ইন্টারনেট সার্ভিসের ওপর ভ্যাট কমতে যাচ্ছে বলে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড সূত্রে জানা গেছে। সূত্র জানায়, বর্তমানে ইন্টারনেট ব্যবহারের ওপর ১৫ শতাংশ ভ্যাট দিতে হয়।

বৃহস্পতিবার অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত জাতীয় সংসদে ২০১৮-১৯ অর্থ বছরের বাজেট পেশ করবেন। বর্তমানে মোবাইল ব্যবহারকারীদের ১০০ টাকার ইন্টারনেট ব্যবহারে ১৫ শতাংশ ভ্যাট দিতে হয়। এর সঙ্গে রয়েছে ৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক এবং এক শতাংশ সারচার্জ। সবমিলিয়ে ১০০ টাকার ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য একজন গ্রাহককে প্রায় ২২ টাকা দিতে হয়।

বিগত কয়েক বছর ধরে টেলিকম অপারেটর, ইন্টারনেট সেবা প্রদানকারী, সফটওয়্যার ও সেবা শিল্প, ই-কমার্স এবং ডিজিটাল সেবা প্রদানের সংশ্লিষ্টরা ইন্টারনেটের ওপর থেকে সব ধরনের কর প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে আসছিলেন। এ বিষয়ে সম্প্রতি অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত সংশ্লিষ্টদের আশ্বাস দিয়েছেন।

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) হিসেবে চলতি বছরের এপ্রিল পর্যন্ত দেশে ৮.৫৯ কোটি ইন্টারনেট গ্রাহক রয়েছে। এর মধ্যে ৮.০২ কোটি গ্রাহক মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ইন্টারনেটে যুক্ত আর মাত্র ৫৭ লাখ গ্রাহক ইন্টারনেট সেবা প্রদানকারীদের মাধ্যমে যুক্ত।

অ্যাসোসিয়েশন অব মোবাইল টেলিকম অপারেটরস অব বাংলাদেশ (অ্যামটব) এর তথ্য অনুসারে, সরকার ইন্টারনেটের ওপর ভ্যাট থেকে প্রতি বছরে ১,১০০ কোটি টাকা রাজস্ব আয় করে থাকে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সরকার যদি ইন্টারনেটের ওপর থেকে ভ্যাট হ্রাস করে তবে ডিজিটাল অর্থনীতি গড়তে এক ধাপ এগিয়ে যাবে দেশ। টেলিকম অপারেটর ও ইন্টারনেট ব্যবসার সঙ্গে যুক্তরা অনেক দিন ধরেই ইন্টারনেট সার্ভিসের ওপর থেকে ভ্যাট কমানোর দাবি জানিয়ে আসছিলেন। এ নিয়ে সম্প্রতি অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত সংশ্লিষ্ট খাতের ব্যক্তিদের ভ্যাট কমানোর আশ্বাসও দিয়েছিলেন।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, খাবার ও পানির মতো ডিজিটাল এই যুগে ইন্টারনেট একটি দৈনন্দিন প্রয়োজনীয় জিনিস।  সুতরাং এ ধরনের নিত্যপ্রয়োজনী জিনিসে ভ্যাট কিংবা ট্যাক্স না থাকাটাই বাঞ্জনীয়। ইন্টারনেট সেবার ওপর ভ্যাট কমানোর সরকারের এই প্রস্তাবের ফলে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কাজে বড় ধরনের সহায়ক হবে।

ইন্টারনেট ব্যবহারে তথ্য প্রযুক্তি খাতে ব্যবহারকারীদের জন্য যেমন সুখবর থাকছে তেমনি দু:সংবাদও রয়েছে। ইন্টারনেট ব্যবহারের ওপর ভ্যাট কমলেও তথ্যপ্রযুক্তি সেবার ওপর সম্পূরক শুল্ক ৫ শতাংশ করার প্রস্তাব আসছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.