তানভীর আলাদিন : রাজধানীতে প্রতিদিন নানান বিষয়ক কয়েক’শ অনুষ্ঠান হচ্ছে। অনুষ্ঠানগুলোতে স্বাভাবিকভাবেই প্রধান অতিথি আর বিশেষ অতিথিও থাকেন। 
এবার বোধহয় প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথি ও অনুষ্ঠান আয়োজকরা একটু সচেতনতার সঙ্গে সাবধান হওয়ার সময় এসেছ। কারণ ইদানিং বিভিন্ন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথিদের প্রতারনতার ফাঁদে ফেলার জন্য একটি সংঘবদ্ধ ও চৌকষ প্রতারক চক্র সক্রিয় উয়ে উঠেছে বলে অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে।
প্রতারক চক্রের সদস্যরা টার্গেট করা অনুষ্ঠানটি শুরু হওয়ার আগেই কৌশলে অনুষ্ঠানের ধরণ ও প্রধান অতিথি এবং বিশেষ অতিথিদের সম্পর্কে জেনে নেয়। পরে এক বা একাধিক ব্যাক্তিকে টার্গেট করে এবং ওই ব্যাক্তির সঙ্গে অনুষ্ঠান ভেন্যুতে প্রবেশ করে। অনুষ্ঠানের আয়োজকরা ভেবে নেন ওই ব্যাক্তিরা(প্রতারক চক্র) বুঝি অতিথির সঙ্গী। এই সময় ওরা অতিথির বেশ কিছু ছবি তোলেন এবং তার কাছ থেকে ভিজিটিং কার্ড অথবা মোবাইল ফোন নম্বর নিয়ে নেন।আবার অতিথিরাও মনে করেন, ওরা বুঝি আয়োজকদেরই কেউ।
পরে প্রতারক চক্র ছবিগুলো প্রিন্ট করে ভিজিটিং কার্ডের ঠিকানায় অতি দ্রুত পৌঁছে যায় অতিথির কাছে। গিয়ে বলে আয়োজকদের পক্ষ থেকে তাদের পাঠানো হয়েছে ছবিগুলো দিয়ে এবং ইনিয়ে-বিনিয়ে কৌশলে বুঝিয়ে থাকে যে অনুষ্ঠানটি আয়োজন করে তাদের মোটা অংকের লোকসান গুনতে হয়েছে। তাই আযোজকরা তাদের পাঠিয়েছেন কিছু টাকা দিয়ে সহযোগিতা করার জন্য!
সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রটিতে নারী সদস্যও রয়েছে, ওরা সবাই বেশ-ভূষা আর কথা-বার্তায় এতোই চৌকষ অতিথি তৎক্ষণাত তাদের বিশ্বাস করে বসেন এবং প্রতারিত হন। তিনি এমনভাবে প্রতারিত হন তা জানতে পারেন অনেক পরে…। কেউ-কেউ হয়তো কোনোদিনই জানতেও পারেন না, যে তিনি প্রতারণার শিকার হয়েছেন। অথচ ভেবে বসেন আছেন তিনি আয়োজকদের আর্থিক সহযোগিতা করেছেন।
এই সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের হাত থেকে বাঁচার জন্য অতিথিগণ ও আয়োজকগণকে সচেতন ও সতর্ক থাকতে হবে। এই সতর্কতা বা সাবধানতা অবলম্বনের পথ হতে পারে-
১. অনুষ্ঠান স্থলে প্রবেশ করা প্রতিটি নারী ও পুরুষের পরিচয় নিশ্চিৎ করা, তিনি যার অতিথি তাকে জানানো…।
২. অনুষ্ঠানের (আয়োজক) কর্তাব্যাক্তিদের সঙ্গে আলোচনা না করে কারো সঙ্গে একটি টাকাও নগদ লেন-দেন না করা।
৩. কর্তাব্যাক্তি ব্যাতিত অন্যকোনো ব্যাক্তি অতিথির সঙ্গে অর্থ লেন-দেনের প্রস্তাব নিয়ে গেলে তাকে সন্দেহের আওতায় রেখে আয়োজকদের সঙ্গে ফোনে/মোবাইলে কথা বলে নিশ্চিৎ হতে হবে।
৪. প্রতারক হিসেবে চিহ্নিত হলে অতিথি এবং আয়োজক মিলেই তাদেরকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়া।

** লেখক : সাংবাদিক ও সংগঠক

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.