ঢাবি প্রতিনিধি : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোটা সংস্কারের দাবিতে সুস্পষ্ট ঘোষণা না দেয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে বলে জানিয়েছেন কোটা সংস্কার দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) কেন্দ্রীয় গ্রন্থাকারের সামনে বুধবার সাড়ে ১০ টায় সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ কমিটি আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে কেন্দ্রীয় নেতারা এ ঘোষণা দেন।

এদিকে কোটা সংস্কারের দাবিতে ঢাবিতে আজও ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করে কোটা সংস্কার ও আন্দোলনকারীদের মারধরের প্রতিবাদে মিছিল করেন বিক্ষোভকারীরা। সকাল থেকে কলা ভবনের বিভিন্ন ফটকে অবস্থান নেন আন্দোলনকারীরা। এ সময় কোটা সংস্কারের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন পোস্টার সেঁটে দেয়া হয়।

সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বিভিন্ন হল থেকে মিছিল নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে জড়ো হতে থাকেন শিক্ষার্থীরা। এ সময় কোটা সংস্কারের পাশাপাশি গতরাতে কবি কবি সুফিয়া কামাল হলে শিক্ষার্থীদেরকে মারধরের ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির দাবি জানান।

সরকারি চাকরির কোটা সংস্কারের দাবিতে গড়ে ওঠা ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতারা সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হলে আন্দোলনকারী ভাই ও বোনদের ওপর আন্দোলনে না আসার জন্য যে হামলা চালানো হয়েছে, আমরা তার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কারের দাবি জানাচ্ছি।

সুফিয়া কামাল হলের ঘটনা নিয়ে তারা বলেন, সুফিয়া কামাল হলের সভাপতি আমার বোনের ওপর বর্বরোচিত হামলা চালিয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তাকে আজীবন বহিষ্কারের যে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে তা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কার্যকরের জোরালো দাবি জানাচ্ছি আমরা।

এছাড়া বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের আহ্বায়কদের আন্দোলন বন্ধ করে দেয়ার জন্য যে চাপ দেয়া হচ্ছে তার নিন্দা জানান এই নেতারা এবং তাদেরকে ছাত্র সমাজের দাবির সাথে একাত্মতা পোষণের আহ্বান জানান। এই আন্দোলনে যারা সহযোগিতা করছেন তাদেরকে ধন্যবাদ জানান ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতারা।
এদিকে ঢাবি শিক্ষার্থীরা জানান, আজকে আমাদের ফাইনাল পরীক্ষা ছিল। কোটা সংস্কারের দাবিতে আমরা সকলেই একযোগে আমাদের ফাইনাল পরীক্ষা বর্জন করেছি।

অন্য আরেক শিক্ষার্থী জানান, আমার বোনের রক্ত উপেক্ষা করে পরীক্ষা দিতে পারি না। সেই সঙ্গে আমাদের আন্দোলন চলছে, চলবে যতক্ষণ না দাবী মেনে না নেয়া হয়।

সরকারি চাকরিতে প্রচলিত কোটা ব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে রবিবার থেকে ঢাকাসহ সারা দেশের শিক্ষার্থী ও চাকরিপ্রার্থীরা বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.