ডেস্ক : সমুদ্রপথে ভারত থেকে সরাসরি বাংলাদেশে মালামাল পরিবহন শুরু করার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ-ভারত বন্ধুত্বের নতুন অধ্যায়ের সূচনা হয়েছে।

ভারতের সড়ক, যোগাযোগ ও জাহাজ চলাচল মন্ত্রী নিতিন গাদকরী শনিবার এই ভারত-বাংলাদেশ জাহাজ চলাচলের উদ্বোধন করেন। এর পরপরই ভারতের চেন্নাই বন্দর থেকে অশোক লে-ল্যান্ড লিমিটেড-এর ১৮৫টি ট্রাক নিয়ে একটি জাহাজ বাংলাদেশের মংলা বন্দরের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করে।

ভারতের জাহাজ চলাচল মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২০১৫ সালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বাংলাদেশ সফরকালে উভয় দেশের মধ্যে সমুদ্র পথে মালামাল পরিবহনের যে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় ভারত থেকে বাংলাদেশে সমুদ্র পথে মালামাল প্রেরণ শুরুর মধ্য দিয়ে এরই বাস্তবায়ন ঘটলো ।

নিতিন গাদকরী জানান, এতদিন সড়ক পথে এ ধরনের মালামাল প্রেরণ করা হতো। কিন্তু সমুদ্র্র পথে মালামাল প্রেরণ শুরু হওয়ায় আগের থেকে ১৫ থেকে ২০ দিন কম সময়ে এখন ভারত থেকে বাংলাদেশে মালামাল প্রেরণ সম্ভব হবে। সমুদ্র পথে মালামাল প্রেরণের খরচও কম এবং পরিবেশ বান্ধব।

এ সময় মন্ত্রী সব অটোমোবাইল প্রতিষ্ঠানকে সমুদ্র পথে জাহাজ যোগে তাদের তৈরি গাড়ি বিদেশে রপ্তানীর আহ্বান জানান।

উল্লেখ, সমুদ্র পথে পরিবহন ব্যয় ও সময় সড়ক পথের চেয়ে অনেক কম এবং এতে কম কার্বন নিঃসরিত হয় বলে পরিবেশ বান্ধব। বাসস।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.