নিজস্ব প্রতিবেদক : আমি অতি সাধারণ মানুষ। শিক্ষকতা করে জীবন চালিয়েছি। আমাদের কোনো শত্রু নেই। রাষ্ট্র ও সমাজের নানা জটিলতা আমরা বুঝি না। আমরা আমাদের সন্তানকে অক্ষত অবস্থায় ফিরে পেতে চাই।

প্রায় ১৬ দিন হয়ে গেলেও সন্তানের সন্ধান না পেয়ে সেগুনবাগিচায় ক্রাইম রিপোর্টার এসোসিয়েশন (ক্র্যাব) মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে এই আকুতি জানাননিখোঁজ সাংবাদিক উৎপল দাসের পিতা চিত্তরঞ্জন দাস।

এসময় কান্নায় ভেঙে পড়েন পূর্বপশ্চিম বিডি ডট নিউজের সিনিয়র সাংবাদিক উৎপলের বোন ববিতা রানী দাস, বিনীতা রানী দাস। তাদের ভাষ্য, আমার ভাই প্রতিদিন একবার আমাদের কল দিয়ে জিজ্ঞেস করতো দিদি কেমন আছিস। আজ কতদিন হলো আমার সোনা ভাইটা আমাকে কল দেয় না। আমরা কী এমন ক্ষতি করেছি। উৎপলের জন্য আমার মা কিছু খায় না। কারো সাথে কথা বলে না। জানি না এই মুহূর্তে আমার মা কী করছে। আমারা কিছু চাই না, আমার ভাইটারে চাই।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন পূর্বপশ্চিম বিডি ডট নিউজের প্রধান সম্পাদক পীর হাবিবুর রহমান।

তিনি বলেন, ১৬দিনেও প্রাণবন্ত, প্রাণচঞ্চল রিপোর্টার উৎপল দাস আমাদের মাঝে ফিরে আসেনি। যা-শুধু উদ্বেগের বিষয় নয়; তার স্নেহশীল বাবা-মায়ের জন্য ঘুম হারাম করা ভয়ের বিষয়। একটি গণতান্ত্রিক সমাজে এতোদিন ধরে আমাদের সন্তানতুল্য সহজ-সরল উৎপল দাস কোথায়, কেমন আছে? কী ঘটেছে তার জীবনে, কেন তার সন্ধান মিলছে না, আমরা বুঝতে পারছি না।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও নিরাপত্তা সংস্থার কর্মকর্তাদের প্রতি এমনকি দেশবাসীর কাছে আমাদের আবেদন যার যার জায়গা থেকে উৎপলকে ফিরিয়ে আনতে, তার সন্ধানে তৎপর হোন। একটি স্বাধীন রাষ্ট্রে আজ একজন তরতাজা তরুণ সংবাদকর্মী এভাবে দিনেদুপুরে নিখোঁজ হয়ে হারিয়ে যেতে পারে না।

ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি শাবান মাহমুদ বলেন, আমরা নবম ওয়েজ বোর্ডের দাবিতে যে আন্দোলন করছি, সে আন্দোলনের এজেন্ডায় উৎপল দাসের নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টাকে অন্তর্ভুক্ত করেছি। উৎপলকে যতদিন আমরা ফিরে না পাবো ততদিন মানবন্ধন, বিক্ষোভসহ নানা কর্মসূচি পালন করবো।

শাবান মাহমুদ জানান, উৎপলের পরিবারের সঙ্গে আজ র‌্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ সাক্ষাৎ করবেন বলে আমার সঙ্গে কথা তার কথা হয়েছে। ঢাকা মেট্রোপলিটন কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়ার সঙ্গে পীর হাবিব কথা বলেছেন, তিনি পুরো বিষয়টি সম্পর্কে অবগত। তিনি আন্তরিকভাবে দেখছেন বলে জানিয়েছেন।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী, উৎপল দাসের ভাই মনোহর চন্দ্র দাস, পলাশ চন্দ্র দাস, শুভ দেব ভৌমিক প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.