ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অপেক্ষায় আছেন মিয়ানমারের রাখাইন থেকে পালিয়ে আসা লাখ লাখ রেহিঙ্গারা। আজ মঙ্গলবার সকালে উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করার কথা প্রধানমন্ত্রীর। এ সময় প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গাদের সঙ্গে কথা বলবেন। তাই প্রধানমন্ত্রীর অপেক্ষায় আছেন রেহিঙ্গারা।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, আজ মঙ্গলবার বেলা ১০টায় হেলিকপ্টারযোগে উখিয়ায় পৌঁছে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করবেন প্রধানমন্ত্রী। পরে সার্কিট হাউজে কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন তিনি। এরপর নামাজ ও মধ্যাহ্ন বিরতি শেষে ৩টা ৫০ মিনিটে কক্সবাজার ত্যাগ করার কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর।

এদিকে বিদেশি শরণার্থী শিবির হলেও নানা কারণে অপরাধ প্রবণ এলাকা হিসেবে পরিচিত উখিয়া-টেকনাফের রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলো। তাই প্রধানমন্ত্রীর আগমনে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে প্রশাসন।

এ ব্যাপারে কক্সবাজার পুলিশ সুপার ড. এ কে এম ইকবাল হোসেন বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব, বিজিবি সদস্যরাও নিরাপত্তায় নিয়োজিত আছেন।

একই সঙ্গে সাদা পোশাকে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার লোকজন তৎপর রয়েছে। কয়েক হাজার নিরাপত্তাকর্মী ক্যাম্পের ভেতর ও বাইরে দায়িত্বপালন করছেন।

জেলা প্রশাসক মো. আলী হোসেন জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে ইতিমধ্যে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। গড়ে তোলা হয়েছে নিরাপত্তা বলয়। প্রধানমন্ত্রীর সফর সফল করতে সংশ্লিষ্ট বিভাগগুলোকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২৫ অগাস্ট পুলিশের ওপর রোহিঙ্গা মুসলিম বিদ্রোহীরা হামলা চালায়। এর প্রতিক্রিয়াতেই রাখাইন রাজ্যে শুরু হয় সেনা অভিযান। এর ফলে বাংলাদেশে পালিয়ে আসতে বাধ্য হয় রোহিঙ্গারা। জানা গেছে, ওই ঘটনার পর নতুন করে ৩ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা উখিয়া-টেকনাফে আশ্রয় নিয়েছে। আসছে আরো রোহিঙ্গা। পুরাতন ও নতুন মিলিয়ে প্রায় ৯ লাখ রোহিঙ্গা বর্তমানে উখিয়া ও টেকনাফে অবস্থান করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.