বার্মিজ পণ্য বর্জনের ডাক গণজাগরণ মঞ্চের

 বার্মিজ পণ্য বর্জনের ডাক গণজাগরণ মঞ্চের

নিজস্ব প্রতিবেদক : গণজারগণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার বলেছেন, সারাদেশে বার্মার যেসব পণ্য বিক্রি হচ্ছে, তা বাংলাদেশ বর্জন করবে। দেশের কোথাও বার্মিজ পণ্য বিক্রি হতে দেয়া হবে না। কারণ এসব পণ্যে রোহিঙ্গাদের রক্তের দাগ লেগে আছে।

সোমবার বিকেলে ঢাকায় মিয়ানমারের দূতাবাস ঘেরাওয়ের আগে গুলশান ২ নম্বর গোল চত্বরে এক সমাবেশে মিয়ানমারের পণ্য বর্জনের ডাক দেন তিনি।

সরকার মিয়ানমার বা বার্মা থেকে চাল আমদানির যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তা বাতিলের দাবিও জানিয়েছেন ইমরান। যে চালের মধ্যে মানুষের রক্ত, সে চাল বাঙালি খাবে না। সেই চাল দেশে ঢুকতে দেয়া হবে না।

মিয়ানমারে ‘গণহত্যার’ শিকার রোহিঙ্গাদের দলে দলে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়ার মধ্যে এই কর্মসূচি পালন করে একাত্তরের যুদ্ধাপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে গড়ে ওঠা সংগঠনটি।

সমাবেশের পর মিয়ানমার দূতাবাস অভিমুখে গণজাগরণের মিছিল যাত্রা শুরু করলে পুলিশ তাদের বাধা দেয়। এরপর ইমরানের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল চারটি দাবি সম্বলিত স্মারকলিপি দূতাবাসে দিয়ে আসেন।

গণজাগরণের দাবিগুলো হচেছ- অবিলম্বে রোহিঙ্গাদের উপর গণহত্যা বন্ধ করতে হবে, মিয়ানমারে ১৯৮২ সালে নাগরিক আইন সংশোধন করে তাদের নাগরিকত্ব ফিরিয়ে দিতে হবে, বাংলাদেশের অবস্থানরত রোহিঙ্গাদের সম্মানের সঙ্গে ফেরত নিতে হবে এবং এই গণহত্যা জড়িতদের বিচারের আওতায় আনতে হবে।

রোহিঙ্গাদের প্রতি বাংলাদেশের মানবিক দৃষ্টিভঙ্গীর বিশ্বজুড়ে প্রশংসার বিষয়টি তুলে ধরে মিয়ানমারের সঙ্গে সব ধরনের বাণিজ্যিক সম্পর্ক ছিন্ন করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান ইমরান।

মিয়ানমারের অমানবিক আচরণ মাত্রা ছাড়িয়ে গেছে। যে দেশে এত বড় মানবতাবিরোধী অপরাধ হচ্ছে, সে দেশের প্রধান আবার শান্তিতে নোবেল পেয়েছেন।

mimmahmud

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.