ডেস্ক : হারিকেন ইরমা বাহামার লং আইল্যান্ডে সমুদ্রের চেহারাটাকেই আমূল বদলে দিয়েছে। সমুদ্রসৈকত থেকে ব্লটিং পেপারের মতো শুষে নিয়ে গিয়ে যেন সমুদ্রটাকেই খালি করে দিয়েছে। যা অবিশ্বাস্য, দৃশ্যত প্রায় অসম্ভবই, তাকেই সম্ভব করে তুলেছে ইরমা।

 আর এই অদ্ভুত ঘটনার ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।
বাহামার স্থানীয়রা বলছেন, ‘এমন যে হতে পারে, ভাবতে পারিনি কোনও দিন। এটাই কি বাহামার লং আইল্যান্ড? এখানে তো সমুদ্রটা অন্য রকম ছিল এত দিন। আর আজ পানির চিহ্ন মাত্র নেই সেখানে।’
আবহবিদরা বলছেন, হারিকেন ইরমার জন্ম সমুদ্রে। তা এতটাই শক্তিশালী আর তার চাপ এতটাই কম যে, সমুদ্রে তার আশপাশের এলাকা থেকে সবটুকু পানি তার গর্ভে চলে যাচ্ছে। শনিবার লং আইল্যান্ডে হারিকেন ইরমা বইছিল দক্ষিণ-পূর্ব থেকে উত্তর-পশ্চিমে। তার ফলে দ্বীপের উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে সমুদ্রসৈকতের সবটুকু পানি সে সরিয়ে দিয়েছে। যেন ব্লটিং পেপারের মতো কেউ শুষে নিয়েছে সেখানকার পানি।
এটার কারণ, হারিকেনের গর্ভে চাপ খুব কমে যায় বলে তা আশপাশের বাতাসকেও টেনে নিতে থাকে। তার ফলে বদলে যায় সমুদ্রপৃষ্ঠের চেহারা। তখন আশপাশের এলাকা থেকে জলও টানতে শুরু করে হারিকেনের গর্ভ বা সেন্টার। আর সেই পানিটা ইরমা লং আইল্যান্ডের সৈকত থেকে টেনে নিয়েছে। ফলে পানি খালি হয়ে গিয়েছে লং আইল্যান্ডের সৈকত থেকে। মনে হচ্ছে, যেন কোনও কালেই সেখানে ছিল না কোনও সমুদ্র! তবে ইরমার জোর কমে গেলে ওই পানি আবার ফিরে আসবে লং আইল্যান্ডের সৈকতে।
প্রসঙ্গত, হারিকেন ইরমা ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জে তান্ডব চালিয়ে এখন অামেরিকার ফ্লোরিডায় আঘাত হেনেছে।আনন্দবাজার।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.