নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রাম এবং বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউট (পিআইবি)-এর যৌথ উদ্যোগে অনলাইনে সাংবাদিকতা বিষয়ে প্রশিক্ষণের লক্ষ্যে “অনলাইন সার্টিফিকেট কোর্স অন জার্নালিজম” এর উদ্ভোধন করা হয়েছে।

তথ্যমন্ত্রী জনাব হাসানুল হক ইনু, এমপি মঙ্গলবার পিআইবি অডিটোরিয়ামে এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অনলাইন ভিত্তিক এই কোর্সের উদ্বোধন করেন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব জনাব মরতুজা আহমেদ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মফিজুর রহমান। অনুষ্ঠানটি সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউট এর মহাপরিচালক জনাব মোঃ শাহ আলমগীর।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, “তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির ব্যবহার ঘটিয়ে বাংলাদেশের বিভিন্ন ক্ষেত্রে যে অগ্রগতি হচ্ছে, সেই অগ্রগতির ধারাকে গণমাধ্যমের ক্ষেত্রেও বজায় রাখতে অনলাইনে সাংবাদিকতা শেখার এ সুযোগ চালু হয়েছে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের সাংবাদিক, সাংবাদিকতা শিক্ষার্থীসহ যে কোন নাগরিক অনলাইনে সাংবাদিকতার এই কোর্সগুলোর মাধ্যমে নিজেদেরকে সমৃদ্ধ করতে পারবেন”।

এছাড়া বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মরত জনসংযোগ বা যোগাযোগ কর্মীদেরও কোর্সগুলো থেকে উপকৃত হওয়ার সুযোগ তৈরী হবে। তিনি আরও বলেন, “অনলাইনে সাংবাদিকতা শিক্ষার এ সুযোগ দেশের সাংবাদিকতা শিল্পের জন্য গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। এর মাধ্যমে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের সংবাদকর্মীরা নিজেদেরকে আরও যোগ্য ও দক্ষ করে গড়ে তুলতে পারবেন”।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তথ্যসচিব মরতুজা আহমদ বলেন, “সংবাদকর্মী ও সাংবাদিকতার শিক্ষার্থীরা এখন নিজেদের ঘরে বসে, অবসর সময়ে বিনামূল্যে সাংবাদিকতা বিষয়ে শিখতে পারবেন। নিজেদের জ্ঞান ও কর্মদক্ষতাকে বাড়ানোর সুযোগ পাবেন। সাংবাদিকরা কোর্সটির মাধ্যমে শুধু সার্টিফিকেটই পাবেন না, বরং নিজেদেরকে আরও দক্ষ করে তুলতে পারবেন”।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়্যারম্যান অধ্যাপক মফিজুর রহমান বলেন, “অনলাইনে সাংবাদিকতা শেখার পিআইবি’র এই আয়োজন বাংলাদেশে সাংবাদিকতা বিষয়ক প্রশিক্ষণে নতুন যুগের উন্মোচন করলো। ই-লার্নিং এর মাধ্যমে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের সংবাদকর্মীরা নিজেদের জ্ঞানকে আরও সমৃদ্ধ করতে পারবে”।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে এটুআই প্রোগ্রামের জনপ্রেক্ষিত বিশেষজ্ঞ নাঈমুজ্জামান মুক্তা অনলাইনে সাংবাদিকতা শিক্ষাকে প্রত্যন্ত অঞ্চলে ছড়িয়ে দেয়ার কাজটাকে গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে জানান, ই-লার্নিং এর মাধ্যমে সাংবাদিকদের এই শেখার সুযোগ প্রত্যন্ত অঞ্চলের সাংবাদিকদের চর্চা ও কাজের ধরনে পরিবর্তন আনবে।

তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী ২০১৬ সালের ১লা ফেব্রুয়ারি যে মুক্তপাঠের শুভ উদ্বোধন করেছিলেন, সেটা আজ দেশের সংবাদকর্মীদের প্রশিক্ষণ চাহিদা মেটাতে ভূমিকা রাখতে যাচ্ছে বলে আমরা আনন্দিত।

সভা প্রধানের বক্তব্যে পিআইবি মহাপরিচালক মো. শাহ আলমগীর বলেন, “পিআইবি প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই সাংবাদিকদের পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধিতে কাজ করে আসছে। বাংলা ভাষায় ই-লার্নিং-এর মাধ্যমে সাংবাদিকতা শেখার নতুন এই আয়োজন দেশের সাংবাদিকতা শিক্ষার ইতিহাসে প্রথম। এই আয়োজনকে কার্যকর ও টেকসই করার জন্য আমরা সর্বাত্বক চেষ্টা করছি।

“দেশ ও দেশের বাইরের সংবাদকর্মীরা অনলাইনের মাধ্যমে নিজেদের পেশার খুঁটিনাটি বিষয়সহ বিস্তারিত সকল কিছু জানতে পারবে, যা তাদেরকে যার যার কাজের জায়গায় আরও যোগ্য ও দক্ষ করে তুলবে”।

উল্লেখ্য, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ধারাবাহিকতায় এটুআই এর সহযোগীতায় প্রাথমিকভাবে সংবাদকর্মী, সাংবাদিকতার শিক্ষার্থী ও সাংবাদিকতায় আগ্রহী তরুণদের জন্য “অনলাইন সার্টিফিকেট কোর্স অন জার্নালিজম” শীর্ষক সাংবাদিকতা বিষয়ক চার মাস মেয়াদি চারটি অনলাইন সার্টিফিকেট কোর্স চালু করা হয়েছে।

সাংবাদিকতায় বেসিক কোর্স, টেলিভিশন সাংবাদিকতা, অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা ও উন্নয়ন সাংবাদিকতা শীর্ষক এই চারটি কোর্স সাংবাদিকসহ আগ্রহী শিক্ষার্থীরা বিনামূল্যে রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে কোর্সে অংশ নিতে পারবেন।

কোর্সগুলোতে অংশগ্রহণ করতে হলে ২৯ আগস্ট থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তারিখের মধ্যে কোর্সের ওয়েবসাইটে (pib.muktopaath.gov.bd) গিয়ে অনলাইনে যে কোন কোর্সে শিক্ষার্থী হিসেবে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। কোর্স শেষে শিক্ষার্থীদেরকে সনদপত্রও প্রদান করা হবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে এটুআই ও পিআইবি’র কর্মকর্তা এবং বিভিন্ন গণমাধ্যম ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.