ডেস্ক : দুর্নীতির দায়ে স্যামসাং প্রধান লি জে-ইয়ংকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ার একটি আদালত। শুক্রবার তার এ সাজা ঘোষণা করা হয় বলে জানায় বিবিসি।

তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, যে দুর্নীতির দায়ে দেশটির প্রেসিডেন্ট পার্ক জিউন-হাই পার্লামেন্টে অভিশংসিত হয়েছেন, সেই দুর্নীতির সঙ্গে তারও যোগসূত্র রয়েছে। অবশ্য লি বরাবরই তার বিরুদ্ধে আনা সকল অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন।

বিবিসি’র প্রতিবেদনে বলা হয়, ৪৯ বছর বয়সী লি’র বিরুদ্ধে স্যামসাংয়ের কনস্ট্রাকশন প্রতিষ্ঠান সিঅ্যান্ডটি ও সংযুক্ত প্রতিষ্ঠান চেইল ইন্ডাস্ট্রিজ জোড়া লাগিয়ে একটি প্রতিষ্ঠানে পরিণত করার সময় দুর্নীতির আশ্রয় নেয়ার অভিযোগ রয়েছে।

সেসময় সরকারের আনুকূল্য পেতে প্রেসিডেন্ট পার্ক জিউন-হাই’র ঘনিষ্ঠ বান্ধবী চই সুন-সিল ও তার মেয়ের অলাভজনক একটি ফাউন্ডেশনে ৩ কোটি ৬৩ লাখ ডলার অনুদান দেন জে-ইয়ং। বিশেষ সুবিধা পাওয়ার আশায় এ অনুদান দেয়াকে ঘুষ হিসেবেই ধরা হচ্ছে। এই কেলেঙ্কারির কারণে পার্ককে অভিশংসিত করে দক্ষিণ কোরিয়ার আদালত।

গত ফেব্রুয়ারিতে এ ঘটনায় জে-ইয়ংকে গ্রেফতারের দাবি জানান দক্ষিণ কোরিয়ার বিশেষ আইনজীবীরা। তবে সেসময় আবেদনটি খারিজ করে আদালত। আদালত জানায়, লি’র বিরুদ্ধে উত্থাপিত ঘুষ, অবৈধ অর্থ আত্মসাৎ ও মিথ্যাচারের অভিযোগ প্রমাণের মতো পর্যাপ্ত সাক্ষ্য প্রমাণ নেই।

কিন্তু পরের সপ্তাহে আবারও লি’কে গ্রেফতারের আবেদন জানান আইনজীবীরা। এরপর গত ১৭ ফেব্রুয়ারি তাকে গ্রেফতার করা হয়। সেসময় আদালত জানায়, নতুন অপরাধ মামলায় এবং নতুন তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে লি’কে গ্রেফতার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, স্যামসাং ইলেক্ট্রনিকসের বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান লি জে-ইয়ং। ২০১৪ সালে তার বাবা ও কোম্পানির চেয়ারম্যান লি কুন-হে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার পর থেকে স্যামসাং গ্রুপের অঘোষিত প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। ৭০০ কোটি ডলারের মালিক লি দক্ষিণ কোরিয়ার তৃতীয় ধনী ব্যক্তি। সূত্র: বিবিসি

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.