ডেস্ক: ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আনিসুল হককে ঘুম পাড়িয়ে রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। চিকিৎসার সুবিধার্থে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তার স্ত্রী রুবানা হক।

আগামী সপ্তাহে তার শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যাবে। যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশ হাইকমিশনের প্রেস মিনিস্টার নাদীম কাদির স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

রুবানা হক বলেন, আনিসুলের মস্তিষ্ককে পুরোপুরি বিশ্রামে রাখতে শুক্রবার চিকিৎসকরা তাকে ঘুম পাড়িয়ে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তার স্ট্রোকের সম্ভাব্য সর্বোত্তম চিকিৎসা নিশ্চিত করতে চিকিৎসকরা আরও পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে চান।

প্রসঙ্গত, গত ২৯ জুলাই ব্যক্তিগত সফরে সপরিবারে মেয়র আনিসুল লন্ডনে যান। সেখানে সেরিব্রাল ভাসকুলাইটিসে (মস্তিষ্কের রক্তনালীর প্রদাহ) আক্রান্ত হলে ১৩ আগস্ট তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ১৪ আগস্ট তার দেশে ফেরার কথা ছিল।

মেয়রের স্ত্রী আরও বলেন, প্রথম দফায় যেসব ওষুধ দেয়া হয়েছিল তা তাকে প্রভাবিত করেনি। আগামী সপ্তাহে চিকিৎসার বিষয়ে আরও হালনাগাদ তথ্য পাওয়া যাবে।

বিবৃতিতে আনিসুল হকের জন্য সবার দোয়া চেয়েছেন তার স্ত্রী। তার পক্ষে যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশ হাই কমিশনের প্রেস মিনিস্টার নাদিম কাদির বিবৃতিটি সংবাদমাধ্যমে পাঠিয়েছেন।

মেয়রের পারিবারিক সূত্র জানায়, মেয়র আনিসুল হক আগে থেকেই কিছুটা অসুস্থ ছিলেন। পরিবারের পক্ষ থেকে এর আগে জানানো হয়েছিল, মেয়ের সন্তানের জন্ম উপলক্ষে গত ২৯ জুলাই লন্ডনে যান ৬৫ বছর বয়সী আনিসুল হক। সেখানে অসুস্থ বোধ করায় হাসপাতালে গেলে গত ৪ অগাস্ট পরীক্ষা চলার মধ্যেই তিনি সংজ্ঞা হারান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.