ডেস্ক : দেশের বিভিন্ন নদ-নদীর ৯০টি সমতল স্টেশনের পর্যবেক্ষণ অনুযায়ী ৫১টি পয়েন্টের পানি হ্রাস এবং ৩৬টিতে বৃদ্ধি পেয়েছে। ২৮টি পয়েন্টের পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে এবং তিনটি অপরিবর্তিত রয়েছে।
শনিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় ৯০টি সমতল স্টেশনের পর্যবেক্ষণ অনুযায়ী এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে নদ-নদীর পরিস্থিতি সম্পর্কে এ তথ্য জানায় বন্যা পূর্বভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ব্রহ্মপুত্র-যমুনা ও সুরমা নদীসমূহের পানি সমতলে হ্রাস পাচ্ছে। অন্যদিকে পদ্মা-গঙ্গা ও কুশিয়ারা নদীসমূহের পানি সমতলে বৃদ্ধি পাচ্ছে।
ব্রহ্মপুত্র-যমুনা সমতলে পানি প্রবাহ হ্রাস আগামী ৭২ ঘণ্টায় অব্যাহত থাকতে পারে। গঙ্গা নদীর পানি সমতলে বৃদ্ধি আগামী ৪৮ ঘণ্টা অব্যাহত থাকতে পারে। এদিকে, পদ্মা নদীর পানি সমতলে আগামী ২৪ ঘণ্টায় স্থিতিশীল হয়ে যেতে পারে। আগামী ২৪ ঘণ্টায় সুরমা নদীর পানি সমতলে হ্রাস অব্যাহত থাকতে পারে। অন্যদিকে, কুশিয়ারা নদীর পানি সমতলে স্থিতিশীল হতে পারে।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে শনিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় কাজিপুর যমুনা নদীর ১১৬ সেন্টিমিটার, সিরাজগঞ্জ যমুনা নদীর পানি ১১৮ সেন্টিমিটার, বাঘাবাড়ি আত্রাই নদীর পানি ১০৮ সেন্টিমিটার, এলাসিন ধলেশ্বর নদীর পানি ১০৭ সেন্টিমিটার এবং গোয়ালন্দে পদ্মা নদীর পানি ১০৬ সেন্টিমিটার বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.