নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা)-এর প্রধান নির্বাহী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান বলেছেন, অপহরণ আইন-শৃংখলারক্ষাকারী বাহিনীর কালচারের ভেতরে ঢুকে গেছে।

তিনি বলেন, তারা সামনে গ্রেফতার করতে পারে, জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারে, কেউ তো বাধা দিচ্ছে না, কিন্তু আমরা হারিয়ে যাব কেন? তাহলে এই পরিচয়পত্র দিয়ে আমাদের লাভটা কী হলো? এটা আমাদের সুরক্ষাকবচ। আর নাগরিকরা হারিয়ে গেলে কী হবে, আগামী নির্বাচনে জেতা যাবে? কোনোভাবেই সম্ভব না।

শনিবার রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে ‘আইনের শাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ভূমিকা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মৌলিক অধিকার সুরক্ষা কমিটি আয়োজিত সভায় বক্তব্য দেন সংগঠনের অন্যতম সদস্য ও আইন ও সালিশ কেন্দ্রের সাবেক নির্বাহী পরিচালক নূর খান লিটন, সভার সমন্বয়ক সুপ্রিমকোর্টের অ্যাডভোকেট জ্যোতির্ময় বড়ুয়া প্রমুখ।

বেলা সভাপতি বলেন, ‌জাতীয় পরিচয়পত্রধারী নাগরিকেরা হারিয়ে যায়। কেউ বলতে পারে না। পুলিশ, র‌্যাব, সেনাবাহিনী বলতে পারবে না। এটা তো দিনের পর দিন হতে পারে না। এটা কোনো কথা? ন্যূনতম জবাবদিহিটুকু থাকবে না?

সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান বলেন, যদি একটা অপহরণের ঘটনাই হতো শেষ অপহরণের ঘটনা, তাহলে অবশ্যই যারা অপহৃত হয়েছেন তারা এবং তাদের পরিবার কথা বলতেন। একটা অপহরণের ঘটনা সারতে না সারতেই যদি দেখেন, সাতজন অপহরণ হয়েছেন, তাও আবার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে দিয়ে এবং এমন পর্যায় থেকে তাকে আপনি ফেলে দিতে পারবেন না।… এটা তো আইনশৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনীর কালচারের ভেতরে ঢুকে গেছে।’

এসময় বাংলাদেশের মানুষ একটা ‘বিপদে পড়ার কালচারের’ মধ্যে ঢুকে গেছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

জনগণের অনাস্থা, অবিশ্বাসের জায়গাগুলো শনাক্ত করে, আস্থা ও বিশ্বাস ফিরিয়ে আনতে সরকারকে পরামর্শ দেন তিনি। একই সঙ্গে র‍্যাবের ব্যাপারেও চিন্তা করার প্রয়োজন আছে বলেও মনে করেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.