নিজস্ব প্রতিবেদক : বাড়ি বাড়ি গিয়ে ২৫ জুলাই থেকে ভোটারদের তথ্য সংগ্রহ করবে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। তথ্য সংগ্রহের কাজ চলবে ৯ আগস্ট পর্যন্ত। আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে বুধবার দুপুরে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান ইসি সচিব মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ্। সচিব জানান, ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে যাদের বয়স ১৮ হবে এবং যেসব নাগরিক ভোটার হওয়ার যোগ্য কিন্তু বিভিন্ন কারণে হতে পারেননি কেবল তাদের ভোটার করা হবে। সে হিসেবে এ ধাপে ২০০০ সালের ১ জানুয়ারি বা তার আগে যাদের জন্ম এমন নাগরিকদের তথ্য সংগ্রহ করা হবে বলে জানান তিনি।

ইসি সচিব জানান, এসব নাগরিকের নিবন্ধনের কাজ চলবে ২০ আগস্ট থেকে ২২ অক্টোবর (ঈদুল আযহা, দূর্গাপূজা (বিজয়া দশমী) ছুটির দিনগুলো ব্যতীত) পর্যন্ত।

‘আমরা সবাই জানি ৩৬৫ দিনই ভোটার হওয়া যায়। যেকোনো দিন যেকোনো লোক সংশ্লিষ্ট উপজেলা/থানা নির্বাচন অফিসে গিয়ে ভোটার হতে পারেন। এ কাজ করতে ধারাবাহিকভাবে আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছি,’ যোগ করেন সচিব।

ইসি জনসংযোগ পরিচালক আসাদুজ্জামান জানান, আগামী ২৫ জুলাই ২০১৭ হতে সারাদেশে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসূচি ২০১৭ শুরু হচ্ছে। ২৫ জুলাই ২০১৭ হতে ৯ আগস্ট ২০১৯ পর্যন্ত নির্বাচন কমিশনের তথ্য সংগ্রহকারিগণ বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটার হওয়ার যোগ্য নাগরিকদের তথ্য সংগ্রহ করবেন। ভোটার তালিকা হতে মৃত ভোটারের নাম কর্তনের জন্য এসময় তথ্য সংগ্রহকারীগণ মৃত ভোটারের তথ্যও সংগ্রহ করবেন।

যাদের জন্ম ০১ জানুয়ারি ২০০০ বা তার পূর্বে অর্থাৎ ০১ জানুয়ারি ২০১৮ তারিখে যাদের বয়স ১৮ বা তদূর্ধ্ব কিন্তু ভোটার হালনাগাদের বিগত কার্যক্রমে বাদ পড়েছেন শুধু মাত্র তাদেরকে ভোটার তালিকাভুক্তির জন্য তথ্য সংগ্রহ করা হবে।

হালনাগাদের সময় ভোটারের ঠিকানা স্থানান্তরের কাজও চলবে। যারা আবাসস্থল স্থানান্তর করেছেন তাদেরকে নতুন ঠিকানায় ভোটার স্থানান্তরের জন্য ফরম ১২ পুরণ করে যে ঠিকানায় স্থানান্তর হতে চান সে এলাকার সংশ্লিষ্ট থানা/উপজেলা নির্বাচন অফিসে প্রয়োজনীয় দলিলাদিসহ জমা দিতে হবে।

ইসির তথ্যমতে, দেশে বর্তমানে ১০ কোটি ১৮ লাখ ভোটার রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.