প্রযুক্তি ডেস্ক : মাঠে মাশরাফি-তামিম-মুশফিক, মাঠের বাইরে কোটি কোটি ক্রিকেটপাগল মানুষ। সেখান থেকে ক্রিকেট এবার হাতের মুঠোয় স্মার্টফোনের অ্যাপ্লিকেশনে। ক্রিকেটভক্তদের জন্য অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনে এসেছে নতুন গেম ‘ক্রিকেট ক্যারিয়ার: সুপার লিগ (এসএল)।’

এই গেমটি প্লেয়ারদের দেয় সুপার পাওয়ার এবং একইসঙ্গে তাদের অসাধারণ ম্যানেজার ও ক্রিকেটার হওয়ার সুযোগ। গেমে একটি শক্তিশালী দল তৈরির জন্য ক্লাবের ম্যানেজার হিসেবে প্লেয়ারকে খেলোয়াড় কিনতে ও বিক্রি করতে হবে। একইসঙ্গে ক্লাবের অর্থ পরিচালনা করতে হবে, খেলোয়াড়দের প্রশিক্ষণ দিতে হবে। মাঠের মধ্যে খেলোয়াড়রা ম্যাচটি অটো সিম্যুলেট করতে পারবে। কিংবা নিজেরাও দলের যে কোনো খেলোয়াড়কে বেছে নিয়ে ম্যাচ খেলতে পারবে।

ক্রিকেট ক্যারিয়ার: সুপার লিগ (এসএল) গেমটি তৈরি করেছে ঢাকার গেম ডেভেলপমেন্ট কোম্পানি পেচাস গেম স্টুডিও। গেমটি বাজারজাত করছে জাপাক।

গেমটিতে রযেছে সুপার শটস ও সুপার বলস। যখন খেলোয়াড়রা ক্রমাগতভাবে ব্যাট বা বল করে, একটি সুপার মিটার চার্জ আপ হয়। এটা একবার চার্জ হয়ে গেলে একটি সুপার পাওয়ারের শট বা বল ব্যবহার করার সুযোগ থাকে, যার অ্যাকশন যেকোনো হলিউড অ্যাকশন চলচ্চিত্রের জন্য উপযুক্ত হবে।

পেচাস গেম স্টুডিও-এর সিইও মাইয়াজ এম রহমান বলেন, আমরা সর্বদা স্বপ্ন দেখেছি ক্রিকেটের ভক্তদের একটি অবিস্মরণীয় মোবাইল ক্রিকেট গেমের অভিজ্ঞতা দিতে, যা আমাদের আবেগকে ডেভেলপার এবং ক্রিকেটের অনুরাগী হিসেবে প্রতিফলিত করে। জাপাকের মতো একটি বিখ্যাত প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি কাজ করে আমরা অনেক কিছু শিখতে সক্ষম হয়েছি এবং বিশ্বের কাছে ক্রিকেট ক্যারিয়ার সুপার লীগের মতো একটি ম্যানেজমেন্ট-কর্ম সংকর ক্রিকেট খেলা আনতে পেরে আমরা খুবই গর্বিত।

গেমটি খেলতে যা দরকার : অ্যান্ড্রয়েড ৪.১ জেলি বিন, ১.৫ জিএইচ ডুয়াল কোর বা ১.২ জিএইচ কোয়াড কোর সিপিইউ এবং ২ জিবি র্যাম। গেমটি গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করা যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.