হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলার চার্জশিট শিগগিরই : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

 হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলার চার্জশিট শিগগিরই : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : গুলশানের হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলার ঘটনায় যে কোনো দিন চার্জশিট দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

সচিবালয়ে বরিবার (৪ জুন) নিজ দফতরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ কথা জানান।

গত বছরের ১ জুলাই রাতে রাজধানীর গুলশানের হলি আর্টিজার বেকারি রেস্তোঁরায় জঙ্গিরা হামলা চালিয়ে ২ জন পুলিশ ছাড়াও জিম্মি ২০ দেশি-বিদেশিকে নৃশংসভাবে হত্যা করে। ২০ জিম্মির মধ্যে ১৭ জনই ছিলেন বিদেশি। পরদিন ভোরে সেনা বাহিনীর অভিযানে ৫ জঙ্গিও নিহত হয়।

হামলার প্রায় এক বছর হয়ে গেছে, চার্জশিটের বিষয়ে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘হলি আর্টিজানের ফাইনাল চার্জশিট খুব শিগগিরই দিয়ে দেব। যেটা আমরা সঠিকভাবে পেয়েছি তথ্য প্রমাণের মাধ্যমে সেটা করার জন্য একটু সময় নিয়েছি। এটা অলমোস্ট রেডি, এটা যে কোনো দিন হয়তো চার্জশীট দিয়ে দেবে আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী।’

‘চার্জশিট দেওয়ার পরে এটার যথাযোগ্য বিচার হবে। বিচার বিভাগ যথা সম্ভব তাড়াতাড়ি বিচারটা করবে, সেটা আমরা সবাই আশা করছি।’

আসাদুজ্জামান খাঁন বলেন, ‘রোজায় আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী প্রোগ্রাম অনুযায়ী কাজ করছে, গোয়েন্দারা যেভাবে তৎপর রয়েছে, এ ধরনের ঘটনা আর ঘটবে বলে আশা করি না।’

রোজায় নিরাপত্তা নিশ্চিতে নানা ধরণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘ব্যবসায়ী এবং সাধারণ মানুষ যেন কোনো ধরনের নিরাপত্তাহীনতা বোধ না করে সেজন্য নিরাপত্তা বাহিনী ব্যবস্থা নিয়েছে। বড় বড় মার্কেটের পাশে নিরাপত্তা বাহিনী এবং মার্কেটের মধ্যে সাদা পোশাকে নিরাপত্তা বাহিনী থাকেন। ঢাকা শহরের পাশাপাশি জেলা শহরেও পুলিশ কাজ করছে।’

লংগদুতে হামলাকারীদের ভিডিও ফুটেজ দেখে শনাক্ত করা হবে

গত ২ জুন রাঙ্গামাটির লংগদুতে যুবলীগ নেতা নুরুল ইসলাম নয়নের হত্যার খবরে পাহাড়ীদের ঘর-বাড়িতে হামলা ও অগ্নি-সংযোগের ঘটনা ঘটে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘লংগদুতে পাহাড়িদের বাড়ি-ঘরে হামলা ও পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় জড়িতদের ভিডিও ফুটেজ দেখে শনাক্ত করে গ্রেফতার করা হবে। আমরা এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নিচ্ছি যাতে করে এই ধরনের দুঃসাহস আর কেউ না দেখাতে পারে।’

আসাদুজ্জামান খাঁন বলেন, ‘এ ঘটনার পর পরই আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী যারা যারা চিহ্নিত ও প্রমাণ পাওয়া গেছে তাদের আটক করেছে। ইতিমধ্যে ১২ জনকে আটক করা হয়েছে। আরও কয়েকজনকে খোঁজা হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা মনে করি, যারা যারা আমাদের প্রমাণে আসবে কিংবা কোনো ধরনের ফুটেজ বা কিছু থাকবে, সবাইকে আমরা ধরব।’

রূপগঞ্জে জলাশয়ে আরও অস্ত্র থাকতে পারে

শুক্রবার নারায়ণগঞ্জের একটি জলাশয় থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এই জায়গায় যে ধরনের অস্ত্র আসছে আপনারা সবাই দেখেছেন, এসএমজি, গ্রেনেড, পিস্তল, বেশ কিছু ডিভাইস পাওয়া গেছে। এগুলো নিশ্চয়ই কোন ধ্বংস কিংবা কোন ষড়যন্ত্রের একটা প্রচেষ্টা চলছিল, সেটা আমরা মনে করছি।’

আসাদুজ্জামান খাঁন বলেন, ‘আমরা মনে করছি ওই জায়গায় আরও কিছু থাকতে পারে। সেজন্য আমরা গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে ওই জায়গার পানি সেচ যন্ত্রের মাধ্যমে সরিয়ে সেই জায়গায় আরও পাব (অস্ত্র) বলে আশা করছি, গোয়েন্দা তথ্য রয়েছে সেই রকমই।’

কীভাবে অস্ত্রগুলো আমাদের দেশে আসছে, কীভাবে এবং কারা এর সাথে সম্পৃক্ত তা পূর্ণাঙ্গ তদন্তের পরই জানানো হবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী।

mimmahmud

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.